সংবাদ শিরোনাম

হবিগঞ্জে বিদ্রোহীর আগুনে পুড়েছে তিন নৌকাকক্সবাজারে পিস্তল রামদাসহ ৫ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী আটকবেরোবির অনুমোদিত নকশা পরিবর্তন মেনে নেয়া যায় না: তদন্ত কমিটিঅসময়ে ঢাকায় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি, বাড়বে শীতবসুরহাট নির্বাচন নিয়ে রিজভীর বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছে কোম্পানীগঞ্জ আ.লীগখালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ের ইমাম মারা গেছেনইসলাম অবমাননাকর বক্তব্য থেকে পিছু হটলেন গ্রিসের সেই ধর্মগুরুহোয়াইট হাউজের বিদায়ী ভাষণে ট্রাম্প বললেন, ‘যা করতে এসেছিলাম, তার সবই করেছি’কক্সবাজারে মা-মেয়েকে কুপিয়ে হত্যাচাঁদপুরে পিঠা বিক্রির ২০ বছর উপলক্ষ্যে ফ্রিতে খাওয়াবেন বিক্রেতা!

  • আজ ৬ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

◷ ১১:৫৫ পূর্বাহ্ন ৷ রবিবার, নভেম্বর ২৯, ২০২০ ফিচার
প্রধানমন্ত্রী

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- যমুনা নদীর ৩০০ ফিট উজানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রেলওয়ে সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের মাধ্যমে নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় তিনি বঙ্গবন্ধু রেল সেতু নির্মাণ হলে রেল সংযোগে নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হবে বলে মন্তব্য করেছেন।

রোববার (২৯ নভেম্বর) সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করে সেতুটির নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন।

রেলমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন সিরাজগঞ্জের বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম প্রান্ত থেকে অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। অনুষ্ঠানে স্থানীয় বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, সংসদ সদস্য, রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব সেলিম রেজা ও বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র জানায়, বঙ্গবন্ধু রেলসেতু হবে বিদ্যমান বঙ্গবন্ধু সেতুর সমান্তরাল ডুয়েল গেজ ডাবল ট্র্যাকসহ প্রায় চার দশমিক ৮০ কিলোমিটার। সেতুর উভয়প্রান্তে প্রায় দশমিক শূন্য পাঁচ কিলোমিটার ভায়াডাক্ট, প্রায় সাত দশমিক ৬৬৭ কিলোমিটার রেলওয়ে অ্যাপ্রোচ এমব্যাংকমেন্ট অ্যান্ড এবং লুক ও সাইডিংসহ মোট প্রায় ৩০ কিলোমিটার রেললাইন নির্মাণ করা হবে।

বঙ্গবন্ধু রেল সেতু ডুয়েল গেজ ডাবল ট্র্যাক হওয়ায় পূর্বাঞ্চল ও পশ্চিমাঞ্চলের মধ্যে চলাচলকারী সংশ্লিষ্ট ট্রেনগুলোর ক্রসিংজনিত কারণে আগের মতো স্টেশনগুলোতে অপেক্ষা করতে হবে না। ফলে সংশ্লিষ্ট ট্রেনগুলোর রানিং টাইম আনুমানিক ২০ মিনিট কমবে, পরিচালন ব্যয় কমবে এবং রেলওয়ের আয় বাড়বে। এ সেতুতে গ্যাস সঞ্চালন পাইপলাইন স্থাপন করা হবে।

সূত্র জানায়, জাপান ও বাংলাদেশ সরকারের যৌথ অর্থায়নে ১৬ হাজার ৭৮০ কোটি টাকা ব্যয়ে এই রেল সেতুটি নির্মাণ করা হবে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে জাইকা। ২০২৪ সালের আগস্ট মাসের মধ্যে কাজ সমাপ্ত হবে। এই সেতু দিয়ে ১০০ কিলোমিটার বেগে একইসঙ্গে দুটি ট্রেন চলাচল করতে পারবে। পাশাপাশি সব ধরনের মালবাহী ট্রেন চলাচল করতে পারবে।