• আজ রবিবার, ১৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ ৷ ২৮ নভেম্বর, ২০২১ ৷

জয়ে ফিরলো বার্সা, ম্যারাডোনাকে গোল উৎসর্গ মেসির

messi
❏ রবিবার, নভেম্বর ২৯, ২০২০ খেলা

স্পোর্টস আপডেট ডেস্কঃ কিছুদিন আগেই অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের কাছে ০-১ গোলে হার, তার সঙ্গে আবার গত বুধবার (২৫ নভেম্বর) ফুটবল কিংবদন্তি দিয়েগো ম্যারাডোনার মৃত্যু- সবমিলিয়ে খুব একটা স্বস্তিজনক অবস্থায় ছিল না বার্সেলোনা। এ অবস্থায় খেলতে নেমেই ওসাসুনার বিপক্ষে দারুণ এক জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে কাতালান ক্লাবটি।

শনিবার রাতে স্প্যানিশ লা লিগার ম্যাচে দুর্বল দল আলাভেসের কাছে ০-২ গোলে হেরেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। ফলে সবার আগ্রহ ছিল আজ (রোববার) ওসাসুনার বিপক্ষে কী করে বার্সেলোনা?- তা দেখার। নিজ দলের সমর্থকদের হতাশ করেননি লিওনেল মেসি, অ্যান্তনিও গ্রিজম্যানরা। মাঠ ছেড়েছেন ৪-০ গোলের সহজ জয় নিয়েই।

ক্যাম্প ন্যুতে ম্যাচের শুরু থেকেই ওসাসুনাকে চেপে ধরে বার্সেলোনা। প্রথম গোল আসে ম্যাচের ২৯তম মিনিটে। পেনাল্টি বক্সের বাম দিক দিয়ে বল নিয়ে এগিয়ে যাওয়া জর্দি আলবা গোলমুখে কুতিনিয়োর দিকে বাড়িয়ে দেন। কুতিনিয়োর শট ফিরিয়ে দেন গোলরক্ষক। তবে বিপদমুক্ত করতে পারেননি তিনি। ফিরতি বল ব্রাথওয়েট শট করলে সেটিও ফিরিয়ে দেন গোলরক্ষক হেরেরা। এবারও বল বিপদমুক্ত করতে পারেননি। ব্রাথওয়েটের দ্বিতীয়বারের চেষ্টায় বল গোললাইন অতিক্রম করে।

৪২ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে বার্সেলোনা। বাম দিক দিয়ে আলবার বাড়ানো ক্রস ওসাসুনার মিডফিল্ডার মনকায়োলা হেড দিয়ে প্রতিহত করেন। সেই বলই ডি-বক্সের বাইরে ছুটে এসে জোরালো এক ভলিতে জালে পাঠান ফ্রান্সের বিশ্বকাপজয়ী তারকা গ্রিজম্যান। ২-০ গোলে এগিয়ে যায় কাতালানরা।

বিরতির পর ৫৭ মিনিটে ব্যবধান বাড়ায় বার্সা। পেনাল্টি বক্সের ভেতরে গ্রিজমানের বাড়ানো বল পেয়ে যান কুতিনিয়ো। ছয় গজ বক্সের বাইরে থেকে ডান পায়ের কোনাকুনি শটে বল জালে পাঠান এই ব্রাজিলয়ান।

৬৭ মিনিটে পর ব্যবধান কমানোর সুযোগ পায় ওসাসুনা। রবের্তো তরেসের জোরালো শট বার্সা গোলরক্ষক টের স্টেগেনকে ফাঁকি ক্রসবারে লেগে ফিরে আসে।

৭৩ মিনিটে পরেই দৃষ্টিনন্দন এক গোল করে দল্কে ৪-০ গোলে এগিয়ে দেন মেসি। এই গোলটি তিনি উৎসর্গ করেন ম্যারাডোনাকে। ত্রিনকাওয়ের পাস থেকে বল পেয়ে ডি-বক্সের বাইরে আড়াআড়িভাবে জায়গা করে বাম পায়ের কোণাকুণি জোরালো শট ঠেকাতে পারেননি ওসাসুনা গোলরক্ষক। এবারের আসরে মেসির এটি চতুর্থ গোল।

গোলের পরই গায়ের জার্সি খুলে ফেলেন মেসি। ভেতরে পরেছিলেন ম্যারাডোনার নিওয়েলস ওল্ড বয়েজের ১০ নম্বর জার্সি। আর্জেন্টিনার এই ক্লাবটির হয়ে ম্যারাডোনা খেলেছিলেন। ওই জার্সি পরে দুই হাত আকাশের দিকে প্রসারিত করে স্মরণ করেন ম্যারাডোনাকে। জার্সি খোলায় হলুদ কার্ড দেখতে হয় মেসিকে। প্রিয় গুরুর জন্য হলুদ কার্ড দেখতে কোনো সংকোচ হয়নি তার।

এই জয়ে ৯ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার সপ্তম স্থানে উঠে এসেছে বার্সেলোনা। ১০ ম্যাচে ২৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রয়েছে রিয়াল সোসিয়েদাদ। দ্বিতীয় স্থানে থাকা অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদের পয়েন্টও ২৩। তিন নম্বরে আছে ভিয়ারিয়াল আর ১৭ পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বর রিয়াল মাদ্রিদ।