সংবাদ শিরোনাম

সৈয়দপুর-রংপুর মহাসড়ক থেকে অজ্ঞাত লাশ উদ্ধারনন্দীগ্রামে আন্তজেলা ডাকাত দলের সদস্য গ্রেফতারশাহজাদপুরে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তাদের অর্থায়নে পাকা ঘর পাচ্ছে প্রতিবন্ধী দম্পতিবাংলাদেশে পরীক্ষা চালানোর জন্য ২০ লাখ টিকা দিয়েছে ভারত: রিজভীফরিদপুরের ভাঙ্গায় ট্রাক-মোটরসাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষ: ২ স্কুলছাত্র নিহতযশোর সীমান্তে ১২ লাখ টাকার ফেনসিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী আটকমধ্য প্রাচ্যের সবজি স্কোয়াশ চাষ হচ্ছে এখন নওগাঁর মাটিতেএসএসসির সংক্ষিপ্ত সিলেবাস প্রকাশচসিক নির্বাচনে সহিংসতার শঙ্কা ও উদ্বেগের যথেষ্ট কারণ রয়েছে: মাহবুব তালুকদারহিলিতে সড়ক দুর্ঘটনায় চাচা-ভাতিজা নিহত

  • আজ ১১ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

অবশেষে ঠিকানা খুঁজে পেলেন বিধবা পঙ্গু শাহাবানু

◷ ১১:১১ অপরাহ্ন ৷ বুধবার, ডিসেম্বর ২, ২০২০ খুলনা
shabanu

ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ জীবনযুদ্ধে হার না মানা ঝালকাঠির রাজাপুরের পুটিয়াখালীর বিধবা পঙ্গু শাহাবানু। স্থানীয় গণমাধ্যমে তার সংগ্রামী জীবনের খবর প্রচার হলে সবার নজর পরে তার দিকে।

ঝালকাঠির জেলা প্রশাসকের নির্দেশনায় রাজাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. সোহাগ হাওলাদার প্রথমে তার সাহায্যে এগিয়ে আসলে শাহাবানু সংগ্রামী জীবনের কথা পৌছায় নাভানা গ্রুপের কাছে।

এরপরে ইউএনও মো. সোহাগ হাওলাদারের সাথে যোগাযোগ করে বুধবার নাভানা গ্রুপের অ্যাসিস্ট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার আফজাল নাজিমের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল ঢাকা থেকে সাহায্যে নিয়ে এগিয়ে আসেন বিধবা পঙ্গু শাহাবানুর বাড়িতে। এসময় এককালীন নগদ অর্থ তুলে দেওয়াসহ পঙ্গু শাহাবানুর আমৃত্যু চিকিৎসাসহ খাদ্য বস্ত্র সহায়তা চালিয়ে যাবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন নাভানা গ্রুপের প্রতিনিধিদল।

ইতিমধ্যে রাজাপুর উপজেলা প্রশাসন পুটিয়াখালী গ্রামের শাহাবানুর বাড়ীতে গিয়ে তার হাতে নগদ ৫ হাজার টাকা তুলে দেন এবং তাকে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর আওতায় নতুন পাকা ঘর তৈরী করে দেন, লাগিয়ে দেন বিদ্যুৎ সংযোগও।

নাভানা গ্রুপের প্রতিনিধিদের সাথে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মোঃ মনিরউজ্জামান, ইউএনও মোঃ সোহাগ হাওলাদার, মহিলা ভাইস চেয়্যারম্যান আফরোজা আক্তার লাইজু, ইউপি চেয়ারম্যান মজিবুল হক কামালসহ স্থানীয় সমাজসেবকরা।

নাভানা গ্রুপের অ্যাসিস্ট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার আফজাল নাজিম জানান, আমরা ঝালকাঠির রাজাপুরের পুটিয়াখালীর বিধবা পঙ্গু শাহাবানুর সংগ্রামী জীবনের কথা মিডিয়ার মাধ্যমে জানতে পেরে তাকে সহযোগিতার হাত বাড়ানোর জন্য নাভানা গ্রুপের পক্ষ থেকে আগ্রহ প্রকাশ করি।

স্থানীয় জেলা ও উপজেলা প্রশাসন এই মহতি উদ্দেশের সাথে আছেন জেনে আমরা দ্রুত পদক্ষেপ নেই। শাহাবানু যতদিন বেঁচে থাকবেন, নাভানা গ্রুপ তার সমস্ত ব্যয়ভার বহন করবে।