বিচ্ছেদের পর স্ত্রীকে এসিড নিক্ষেপ, স্বামীকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

◷ ১০:৫১ পূর্বাহ্ন ৷ বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ৩, ২০২০ ঢাকা
আশুলিয়া থানা

তুহিন আহামেদ, আশুলিয়া প্রতিনিধি: আশুলিয়ায় পারিবারিক কলহের জের ধরে দোলনা আক্তার রিমা (১৮) এক তরুণীকে এসিড নিক্ষেপ করেছে তার সাবেক স্বামী রঞ্জু মিয়া।

ঘটনায় অভিযুক্ত রঞ্জু মিয়াকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী। সেই সাথে চোখ ও মুখসহ বুক পর্যন্ত ঝলসে যাওয়া তরুণীকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বুধবার (০২ ডিসেম্বর) রাত ১০ টার দিকে আশুলিয়ার জামগড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নারীকে উদ্ধার করতে গিয়ে স্থানীয় দুই যুবকও এসিডে দগ্ধ হন। তিনি আশুলিয়ায় দি ড্রেস এন্ড দি আইডিয়াস পোশাক কারখানায় চাকরী করেন। রিমার গ্রামের বাড়ির জামালপুরের মেলান্দহ থানায় ও অভিযুক্ত সাবেক স্বামী রঞ্জু মিয়ার বাড়িও একই এলাকায়।

পুলিশ ও ভুক্তভোগী মেয়ের পরিবার জানায়,খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে সাবেক স্বামী রঞ্জুকে আটক করে গণস্বাস্থ্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে জানাগেছে, দোলনা আক্তার রাতে কারখানা থেকে হেটে বাড়ি ফিরছিল। পথে জামগড়ায় এলাকায় পৌছলে পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা রঞ্জু তাকে এসিড নিক্ষেপ করে। এসময় স্থানীয়রা ঝলসে যাওয়া নারীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠান এবং ওই তরুণীর সাবেক স্বামী রঞ্জুকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোর্পাদ করে স্থানীয়রা।

এসিডে ঝলসে যাওয়া রিমার বাবা দুলাল শেখ জানান, নিজেদের পছন্দেই গত দুই বছর আগে রঞ্জু ও রিমা বিয়ে করে। পরে গত ৩ মাস আগে তাদের ডির্ভোস হয়। এরপর রিমা আশুলিয়ায় চলে আসে এবং একটি পোশাক কারখানায় চাকুরী নেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে রঞ্জু রিমাকে এসিড নিক্ষেপ করে।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রিমার সঙ্গে থাকা তার ভাই জাহিদ জানান, রিমার চোখ, মুখ ও বুক পর্যন্ত এসিডে ঝলসে গেছে। প্রথমে আশুলিয়ার নারী ও শিশু হাসপাতালে নিয়ে গেলে তারা উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। ঢাকা মেডিকেলে রাত ১২ টার দিকে ভর্তি করেছি। ডাক্তাররা এখনো বিস্তারিত কিছু বলেননি। তবে রিমার ড্রেসিং ও চিকিৎসা চলছে।

এ বিষয়ে আশুলিয়া থানার এস আই ইকবাল হোসেন জানান, অভিযুক্ত রঞ্জুকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।