সংবাদ শিরোনাম

টিকা সবাইকে দিয়ে নিই, তারপর আমি নেবো: প্রধানমন্ত্রীসুনামগঞ্জে সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী ২ মাসের অন্তঃসত্ত্বা, ১ জন আটকসংঘর্ষ, গোলাগুলি অতঃপর দুই লাশে শেষ হলো চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনরংপুরে ইটভাটায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, ১৯ লাখ টাকা জরিমানানির্বাচন বর্জন করলেন ইসলামী আন্দোলনের মেয়র প্রার্থী জান্নাতুল ইসলামদেশের প্রথম করোনা টিকা নিলেন নার্স রুনুমুন্সিগঞ্জে শিশু ধর্ষণের দায়ে যুবকের যাবজ্জীবনদেশে করোনা টিকা কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রীনজিরবিহীন নির্বাচন, দিনের ভোট রাতে: ইসিতে বিএনপির অভিযোগমাদারীপু‌রে শাহেদ বেগ হত্যা মামলায় দুইজ‌নের মৃত্যুদণ্ড

  • আজ ১৩ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

প্রকাশ্যে করোনার টিকা নেবেন বুশ, ক্লিনটন ও ওবামা

◷ ১:০৭ অপরাহ্ন ৷ শুক্রবার, ডিসেম্বর ৪, ২০২০ আন্তর্জাতিক
George W. Bush Library Dedication Attended By President Obama And Former Presidents

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ করোনাভাইরাসের তাণ্ডবে দিশেহারা আমেরিকা। ইতোমধ্যে দেশটিতে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ১ কোটি ৪৫ লাখ ৩৫ হাজার ১৯৪ জন। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ৮২ হাজার ৮২৯ জনের। এতাবস্থায় টিকাই হতে পারে এই পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের একমাত্র উপায়।

আর এই টিকার প্রতি জনগণকে উৎসাহিত করতে উদ্যোগ নিলেন আমেরিকার তিন সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা, জর্জ ডব্লিউ বুশ ও বিল ক্লিনটন। তারা টেলিভিশন ক্যামেরার সামনে করোনার টিকা নেবেন বলে জানা গেছে।

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার বরাত দিয়ে মার্কিন সংবাদমাধ্যম এনপিআর জানিয়েছে, ড. অ্যান্থনি ফাউসি টিকাকে নিরাপদ ও কার্যকর মনে করলে ওবামা সেই টিকা নেবেন।

ওবামা বলেন, ‘অ্যান্থোনি ফাউসিকে সাধারণ মানুষ খুবই পছন্দ করেন। তার সঙ্গে কাজ করার দারুণ অভিজ্ঞতা রয়েছে আমার। তাকে বিশ্বাস করি, এ বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই।’

জনসম্মুখে কোভিড-১৯ টিকা নেয়ার বিষয়ে ওবামা আরো জানান, ‘আমি আপনাদের প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি টিকা বের হলে আমি গ্রহণ করবো। হয়তো তা টিভিতে বা ক্যামেরার সামনে গ্রহণ করবো। যাতে করে মানুষ বিশ্বাস করে আমি বিজ্ঞানে আস্থা রাখি।’

ওবামার এই মন্তব্যের পর বুশ ও ক্লিনটনের প্রতিনিধিরাও একই তথ্য জানিয়েছেন। তারা বলছেন, সাবেক এই দুই প্রেসিডেন্টও প্রকাশ্যে টিকা নিতে বেশ আগ্রহী।

তবে কোন ভ্যাকসিন তারা নেবেন এ বিষয়টি জানাননি ওবামা। ফাইজার এবং বায়োএনটেকের ভ্যাকসিন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অনুমোদনের বিষয়ে জো বাইডেন প্রশাসনের আগামী বৈঠকে সিদ্ধান্ত হবে।

যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন টিকার অনুমোদন দেওয়ার পর এর নিরাপত্তা সম্পর্কে জনগণের আস্থা বাড়াতেই তাদের এই উদ্যোগ। অনেক আমেরিকানই করোনার টিকার নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন। বেশ কয়েকটি সংস্থার জনমত জরিপে সেই চিত্রই উঠে এসেছে।

গত আগস্টে ইপসোস-মোরির পরিচালিত জরিপে দেখা গেছে, এক তৃতীয়াংশ আমেরিকান টিকা নিতে আগ্রহী নয়।