সংবাদ শিরোনাম

গাজীপুর ডিবি পুলিশের অভিযানে ১৫০১ পিস ফেনসিডিল উদ্ধার, গ্রেফতার-২কক্সবাজার দুই উপজেলায় পানি সংকটে কৃষকদের হাহাকার, বাঁধ নির্মাণে নানা অনিয়মবেলকুচিতে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান সম্পর্কে প্রেস ব্রিফিংদম্পত্তির অন্তরঙ্গ ভিডিও ধারণ করতে গিয়ে জেলহাজতে ছাত্রলীগ সম্পাদকপদ্মা নদীতে ভ্রমণতরীর উদ্বোধন করলেন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলীসবকিছু ছবি তুলে ফেসবুকে দিতে হয় না : আজহারীজামালপুরে ট্রেনের ধাক্কায় হাসপাতাল ওয়ার্ড বয়ের মৃত্যুবাগেরহাটে হস্তান্তরের শেখ হাসিনার উপহার ৪৩৩টি ঘর পাবনায় মায়ের পান আনতে গিয়ে শ্লীলতাহানির শিকার কলেজ ছাত্রী !শেরপুরে ফাঁসিতে ঝুলে যুবকের আত্মহত্যা

  • আজ ৮ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

তুর্কি নেতার সম্মানে আজারবাইজানের বিজয় দিবস পরিবর্তন

◷ ১১:৪৯ অপরাহ্ন ৷ শনিবার, ডিসেম্বর ৫, ২০২০ আন্তর্জাতিক
azarbaizan

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ নাগারনো-কারাবাখ নিয়ে যুদ্ধে ১০ নভেম্বর জয়ী হয়েছে আজারবাইজান। এজন্য প্রতি বছর ১০ নভেম্বর বিজয় দিবস হিসেবে পালন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল দেশটি।

কিন্তু ওই দিনটি আধুনিক তুরস্কের প্রতিষ্ঠাতা মুস্তাফা কামাল আতাতুর্কের মৃত্যু দিবস হওয়ায় দু’দিন পিছিয়ে আজারবাইজান ৮ নভেম্বরকে বিজয় দিবস হিসেবে নির্ধারণ করেছে।

আজেরি প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ নিজে এ ঘোষণা দিয়েছেন বলে জানিয়েছে তুর্কি সংবাদমাধ্যম ডেইলি সাবাহ।

আজারবাইজানের জাতীয় নেতা ও প্রয়াত প্রেসিডেন্ট হায়দার আলিয়েভ বলেছিলেন, কামাল আতাতুর্ক যেমন তুরস্কের মানুষের কাছে শ্রদ্ধাভাজন ও প্রিয় ব্যক্তি, ঠিক আমাদের আজারবাইজানিদের কাছেও তিনি শ্রদ্ধাভাজন প্রিয়।

মুস্তাফা কামাল আতাতুর্ক বলেছিলেন, আজারবাইজানের আনন্দই আমাদের আনন্দ। তাদের দুঃখই আমাদের দুঃখ।

আর্মেনিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে আজারবাইজের প্রধান সমর্থক ছিলো তুরস্ক। শুধু কূটনৈতিক সমর্থনই নয়, সামরিক সহায়তাও করেছে এরদোয়ান সরকার। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, তুরস্কের দেয়া টিবি-২ ড্রোনই কারাবাখ যুদ্ধের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছে।