সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ২রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সরকার দেশকে অস্থিতিশীল করার নতুন ষড়যন্ত্র শুরু করেছে: ফখরুল

◷ ৬:২২ অপরাহ্ন ৷ রবিবার, ডিসেম্বর ৬, ২০২০ জাতীয়
মির্জা ফখরুল

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- সরকার দেশকে অস্থিতিশীল করার নতুন ষড়যন্ত্র শুরু করেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। রোববার এক আলোচনা সভায় এমন অভিযোগ করেন তিনি।

ফখরুল বলেন, এই সরকার বাংলাদেশকে শেষ করে দিয়েছে, ধ্বংস করে দিয়েছে। এখন নতুন করে তারা ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। এটা একটা গভীর চক্রান্তের নীল নকশার অংশ। বাংলাদেশে তারা আবার অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি করতে চায়, আবারও উদোর পিণ্ডি বুধোর ঘাড়ে চাপিয়ে গণতন্ত্রের সৈনিকদেরকে পেছনে ফেলে দিতে চায়, নির্যাতন করতে চায়।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া কারাগারে মন্তব্য করে ফখরুল বলেন, আমাদের নেত্রী কারাগারে। আর আমাদের নেত্রী এই নিরবে থেকেও, এই নিরবতায় আমাদেরকে শক্তি যোগাচ্ছে।

তিনি বলেন, আমি মনে প্রাণে বিশ্বাস করি যে, তরুণরাই বদলায়, যুবকরাই বদলায়, সমাজ পরিবর্তন করে। আজকে মানুষ পরিবর্তন চায়। এই পরিবর্তন আপনাদেরকেই আনতে হবে। এই ৬ ডিসেম্বর আমাদের আমান উল্লাহ আমান সাহেবরা যে সাহস ও মেধা দিয়ে অসম্ভবকে সম্ভব করেছেন। আমি বিশ্বাস করি, আমাদের তরুণরাও মেধা ও সাহস দিয়ে সেই অসম্ভবকে সম্ভব করবেন।

হঠকারী কোনো সিদ্ধান্ত নয় মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে আমাদের এগুতে হবে। আপনারা কখনোই হতাশ হবেন না। আর কখনো হঠকারী হবেন না। দুইটোই মনে রাখতে হবে। হতাশ হওয়া যাবে না আবার হঠকারীও হওয়া যাবে না। ধরয্য ধরে এগুতে হবে। এটা একটা লম্বা প্রক্রিয়া। মুহুর্তের মধ্যে গণতন্ত্র হয়ে যাবে না, মুহুর্তে মধ্যে নব্বই সালে যে বিজয় এসছিলো সেই বিজয় আসতে দীর্ঘকাল সময় লেগেছে। এই পথ খুব বন্ধুর পথ, এই পথ আমাদের পাড়ি দিতে হবে। কোনো উপায় নেই।

স্বাধীনতার রজন্তী প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ৫০ বছর পূর্তি হচ্ছে আগামী মাসে। ফিফটি ইয়ার্স- রজতজয়ন্তী পালন করতে যাচ্ছে এই সরকার। আমরাও করছি। আমাদের করা আর তাদের করার মধ্যে পার্থক্য কি? যে তারা সেই ১৯৭১ সালের স্বাধীনতার সেই মূল চেতনা গণতন্ত্র, তাকে যে তারা হত্যা করেছিলো স্বাধীনতা যুদ্ধের পরে পরে। তারা আজকে আবার ক্ষমতায় বসে আছে। কিন্তু তারা আজকে স্বাধীনতার রজত জয়ন্তী পালন করছে।