পদ্মা সেতু নির্মাণে বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানিয়েছে পাকিস্তান

◷ ১০:০১ অপরাহ্ন ৷ শুক্রবার, ডিসেম্বর ১১, ২০২০ আলোচিত বাংলাদেশ
padma

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ স্বপ্নের পদ্মা সেতু পুরোপুরি দৃশ্যমান হয়েছে। সবশেষ ৪১তম স্প্যান স্থাপনের মধ্য দিয়ে পুরো সেতুটির ৬.১৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান হলো। এদিকে পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজের সফলতায় বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানিয়েছে পাকিস্তান।

শুক্রবার এ অগ্রগতিতে অভিনন্দন জানায় পাকিস্তান। তাদের পক্ষ থেকে ঢাকা হাইকমিশনের ভেরিফায়েড ফেইসবুক পেজ থেকে এ অভিনন্দন জানানো হয়। এতে বলা হয়, ‘পদ্মা সেতু নির্মাণে বাংলাদেশকে অভিনন্দন।’

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়। ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর খুঁটিতে প্রথম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হতে শুরু করে পদ্মা সেতু। এরপর একে একে বসানো হয় ৪০টি স্প্যান। এতে দৃশ্যমান হয়েছে সেতুর ৬ কিলোমিটার। ৪২টি পিলারে ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যরে ৪১টি স্প্যান বসিয়ে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতু তৈরি হচ্ছে।

মূল সেতু নির্মাণের জন্য কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি (এমবিইসি) এবং নদী শাসনের কাজ করছে দেশটির আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনোহাইড্রো করপোরেশন। দু’টি সংযোগ সড়ক ও অবকাঠামো নির্মাণ করেছে বাংলাদেশের আবদুল মোমেন লিমিটেড।

৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এবং ২২ মিটার প্রশস্ত এ বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুর কাঠামো। পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ সম্পূর্ণ হওয়ার পর আগামী ২০২১ সালের ডিসেম্বরে খুলে দেয়া হবে যান চলাচলের জন্য।