বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুর: মাদ্রাসার দুই ছাত্রের স্বীকারোক্তি

◷ ৮:৪৮ অপরাহ্ন ৷ রবিবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০২০ আলোচিত বাংলাদেশ
madrasa

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ কুষ্টিয়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাংচুর মামলায় গ্রেফতার দুই মাদ্রাসা ছাত্র, জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছে। এ নিয়ে গ্রেফতারকৃত চারজনই জবানবন্দি দিলো।

পাঁচ দিনের রিমান্ড শেষে রোববার দুপুর ২টায় কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে দিয়ে পুলিশ দুই আসামিকে আদালতে আনে। ২টা ৪০ মিনিটে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি নেওয়া শুরু হয়। প্রথমে আসামি নাহিদকে আলাদা করে জবানবন্দি গ্রহণ করা হয়। এরপর অপর আসামি মাদ্রাসাছাত্র মিঠুনের জবানবন্দি গ্রহণ করা হয়।

কুষ্টিয়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক দেলোয়ার হোসেন প্রায় তিন ঘণ্টা ধরে এই জবানবন্দি গ্রহণ করেন। পরে সন্ধ্যার আগে আসামিদের কুষ্টিয়া জেলা কারাগারে নেওয়া হয়।

গতকাল একই মামলার অপর দুই আসামি মাদ্রাসাশিক্ষক আল আমিন ও ইউসুফ আলীও চার দিনের রিমান্ড শেষে একই আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। গত ৮ ডিসেম্বর পুলিশের আবেদনে চার আসামির মধ্যে দুই মাদ্রাসাছাত্রের পাঁচ দিন করে ও দুই মাদ্রাসাশিক্ষককে চার দিনের পুলিশ রিমান্ড দেন আদালত। ৯ তারিখ থেকে তাদের রিমান্ড শুরু হয়।

প্রসঙ্গত, গত ৫ ডিসেম্বর মধ্যরাতে কুষ্টিয়া শহরের পাঁচ রাস্তার মোড়ে বঙ্গবন্ধুর নির্মাণাধীন ভাস্কর্য ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। কুষ্টিয়া পৌরসভার সচিব কামাল উদ্দিন বাদী হয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এই মামলায় গত ৭ ডিসেম্বর অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে পুলিশ।