২০২১ সালের জন্য নস্ট্রাদামুসের ভয়ঙ্কর ভবিষ্যৎবাণী!

prediction
❏ সোমবার, ডিসেম্বর ১৪, ২০২০ জানা-অজানা

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ নসট্রাদামুস বা মিশেল দ্য নোস্ত্রদাম ছিলেন একজন ফরাসি ভবিষ্যদ্বক্তা, জ্যোতিষী, লেখক এবং ঔষধ প্রস্তুতকারক ও চিকিৎসা সামগ্রী বিক্রেতা। তিনি তার লিখিত ভবিষ্যৎবাণীসমূহ প্রকাশ করে বিশ্বব্যাপী বিখ্যাত হয়ে উঠেন।

১৫৫৫ সালে তিনি মোট ৯৪২টি ভবিষ্যতাবাণী করেছিলেন। তার বেশিরভাগই মিলে গিয়েছে বলে দাবি করা হয়ে থাকে। তবে নস্ট্রাদামুসের ভবিষ্যবাণীর ভাষা ও তার ইঙ্গিত নিয়ে এখনও বিতর্ক রয়েছে।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়, নস্ট্রাদামুস অনেক আগেই ২০২০ সালে বিশ্বজুড়ে এক মাহামারীর ভবিষ্যতবাণী করেছিলেন। কিন্তু ২০২১ সালের জন্য তাঁর ভবিষ্যতবাণী নাকি আরও ভয়ঙ্কর।

সোশ্যাল মিডিয়ার দাবি, ২০২১ সালের জন্য নস্ট্রাদামুসের একটি ভবিষ্যতবাণী ছিল, রাশিয়ার এক জৈব বিজ্ঞানী এমন এক জৈবাস্ত্র তৈরি করবেন যা ধ্বংস করে দেবে গোটা পৃথিবীর মানুষকে।

উল্লেখ্য, বিজ্ঞানী মহলের একাংশের দাবি, পৃথিবী ধ্বংসের আগে ঘন ঘন প্রকৃতিক বিপর্যয়, দুর্বিক্ষ, মহামারী, ভূমিকম্প হবে। করোমা মহামারীর পরও পৃথিবীতে বিশাল খাবারের সংকট হতে পারে বলে মনে করছে কোনও কোনও মহল।

গোটা পৃথিবীতে বর্তমানে ৫০ শতাংশ মানুষ বসাবস করেন সমুদ্র উপকূলবর্তি এলাকায়। এখন যেভাবে উষ্ণায়ণ হচ্ছে তাতে রোজই বাড়ছে সমুদ্রের জলস্তর। ফলে কোনও একটা সময় উপকূলবর্তি অঞ্চল সমুদ্রের জলে ডুবে যাওয়াও অসম্ভব কিছু নয়।

উল্লেখ্য, নস্ট্রাদামুস দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ, হিটলারের উত্থান, কমউনিজমের পতন, মার্কিন প্রেসিডেন্টের হত্যা, ইস্রায়েল রাষ্ট্রের গঠনের মতো ঘটনার ভবিষ্যতবাণী করেছিলেন।

সূত্রঃ জি নিউজ