ইবির শহীদ বেদিতে ফুল দেওয়া নিয়ে সংঘর্ষ, প্রগতিশীল সংগঠনগুলোর নিন্দা

৭:৩১ অপরাহ্ন | বুধবার, ডিসেম্বর ১৬, ২০২০ শিক্ষাঙ্গন
iu

ইবি প্রতিনিধিঃ মহান বিজয় দিবসে শহীদ বেদীতে সংঘর্ষের ঘটনায় নিন্দা ও বিচারের দাবি জানিয়েছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনগুলো। বুধবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র মৈত্রী ও ছাত্র ইউনিয়ন ইবি সংসদ পৃথক পৃথক বিবৃতিতে এ নিন্দা ও বিচারের দাবি জানায়।

এক যৌথ বিবৃতিতে ছাত্র ইউনিয়ন ইবি সংসদের সভাপতি নূরুন্নবী সবুজ ও সাধারণ সম্পাদক জি. কে. সাদিক বলেন, ‘শহীদ বেদী আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের পুণ্য-স্মৃতি বিজড়িত পবিত্র স্থান। জাতীয় দিবসসমূহে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানাতে গিয়ে যারা এই পবিত্র স্থানে নিজেদের অভ্যন্তরীণ কোন্দল ও হীনস্বার্থকে কেন্দ্র করে মারামারিতে জড়িয়েছে তারা শহীদের আত্মার প্রতি অসম্মান করেছে ও শহীদ বেদীর মর্যাদা নষ্ট করছে।’

‘ইতোপূর্বেও বিভিন্ন সংগঠন তাদের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জের ধরে শহীদ বেদীতে বিবাদে জড়িয়ে মারামারি করেছে। কিন্তু এ পর্যন্ত কোন ঘটনারই বিচার হয়নি এবং এমন ধৃষ্টতাপূর্ণ বর্বর আচরণও বন্ধ হয়নি। প্রশাসন বরাবরই এসব ঘটনায় হাত গুটিয়ে ছিল। এটা দুঃখজনক ও লজ্জার। এসব ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি এবং এর সাথে জড়িত ও যাদের ইন্ধনে এমন ঘটনা ঘটছে তাদের চিহ্নিত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।’

এদিকে একই ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ছাত্র মৈত্রী ইবি শাখা। এক যৌথ বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, এমন জঘন্য ঘটনায় মহান মুক্তিযুদ্ধে আত্মত্যাগকারী শহীদদের অপমানিত করা হয়েছে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ম হয়েছে।

ঘটনার ছবি এবং ভিডিও ধারণকালে কিছু দুষ্কৃতিকারীকে দায়িত্বপালনরত সাংবাদিকদের উপর চড়াও হতে দেখা গেছে; যা গভীর উদ্বেগের এবং স্বাধীন সাংবাদিকতায় নগ্ন হস্তক্ষেপ বলে আমরা মনে করি। নেতৃবৃন্দ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে ঘটনার যথাযথ তদন্তপূর্বক জড়িতদের অবিলম্বে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।