সংবাদ শিরোনাম

সিলেটে সাংবাদিকতায় সফল নারী সুবর্ণা হামিদহিলিতে ৩ ভুয়া চিকিৎসকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের কারাদন্ডমিনুসহ বিএনপির চার নেতার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার আবেদনআত্মহত্যার ২ মাস পর ছড়ানো হলো স্কুলছাত্রীর আপত্তিকর ভিডিও, অভিযুক্ত পলাতকচট্টগ্রাম কারাগার থেকে পালানো আসামি রুবেল নরসিংদীতে গ্রেপ্তারবাস থেকে নারীকে ছুড়ে ফেলা সেই চালক-হেলপার গ্রেফতারছাগল চুরির ঘটনায় জড়িত নন- সংবাদ সম্মেলনে দাবি সেই ছাত্রলীগ নেতারযতদিন বেঁচে আছি, আমার এলাকার একটি লোক না খেয়ে থাকবে না: জেএইচএম ডিএমডিটেকনাফে বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২, সাড়ে ৩ লাখ ইয়াবা উদ্ধারশাহজাদপুরের খুকনী ইউনিয়ন আ.লীগের সম্মেলনে সভাপতি শাহজাহান, সম্পাদক আফাজ

  • আজ ২৪শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশ আমাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ: মোদী

২:১০ অপরাহ্ন | বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১৭, ২০২০ আলোচিত
modi

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক প্রতিনিয়ত আরও শক্তিশালী হচ্ছে উল্লেখ করে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছেন, ‘প্রতিবেশী দেশ হিসেবে বাংলাদেশ আমাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই আমি বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক আরো শক্তিশালী করাকে অগ্রাধিকার দিয়েছি।’

বৃহস্পতিবার (১৭ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টায় শুরু হওয়া বাংলাদেশ-ভারত দ্বিপক্ষীয় ভার্চুয়াল বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন। বৈঠকে করোনা মোকাবিলায় ও অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রায় দুই দেশ এক সাথে কাজ করবে বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেন দুই দেশের সরকারপ্রধান।

মুজিববর্ষে ২০২১ সালের ২৬ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমন্ত্রণে বাংলাদেশ সফরে আসছেন মোদী। এ প্রসঙ্গে ভারতের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর বাণী অবিনশ্বর। আগামী বছর বাংলাদেশ সফরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর সুযোগ পাওয়া আমার জন্য সম্মানজনক।’

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে সব ভারতীয় নাগরিকের পক্ষ থেকে আমি শুভ কামনা জানাই। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক আরো শক্তিশালী করাকে আমি অগ্রাধিকার দিয়েছি।’

এসময় ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধাসহ আত্মত্যাগকারী সবার প্রতি তিনি শ্রদ্ধা জানান।

বঙ্গবন্ধুর সম্মানে ডাক বিভাগে টিকিট উন্মোচন বিষয়ে ভারতের সরকারপ্রধান বলেন, ‘এটি আমার জন্য সম্মানের যে আমি আপনার সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর ওপর ডাকটিকিট অবমুক্ত এবং বাপু-বঙ্গবন্ধু ডিজিটাল এক্সিবিশন উদ্বোধন করছি।’

সার্ক কাঠামোতে দুই দেশ কাজ করছে জানিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা স্থলসীমান্ত বাণিজ্যে সমস্যা কমাতে পেরেছি, কানেকটিভিটি অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে এবং নতুন নতুন জিনিস যোগ হয়েছে। এই উদ্যোগ প্রমাণ করে যে আমরা সম্পর্ক আরও দৃঢ় করতে চাই।’

বৈঠকে দীর্ঘ ৫৫ বছর পর হলদিবাড়ি-চিলাহাটি রেল চলাচলের উদ্বোধন করেন দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী।

এর আগে দুই প্রধানমন্ত্রীর ভার্চুয়াল বৈঠকের অংশ হিসেবে দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য, জ্বালানি, কৃষিসহ সাতটি খাতে সহযোগিতার ক্ষেত্রে সাতটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই করেছে। রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় এসব সমঝোতা স্মারক সই হয়।