ফেনসিডিলসহ রাজশাহী জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আটক

৭:১১ অপরাহ্ন | শনিবার, ডিসেম্বর ১৯, ২০২০ আলোচিত বাংলাদেশ
atok

সময়ের কণ্ঠস্বর, চাঁপাইনবাবগঞ্জ- সরকারি গাড়িতে ফেনসিডিল বহনের সময় রাজশাহী জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুজ্জামানসহ তাঁর এক সহযোগীকে আটক করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর।

শুক্রবার রাত ১০টার দিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জের মহানন্দা ব্রিজের টোল প্লাজা এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রাজশাহী বিভাগীয় মাদকদ্রব‍্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের উপপরিচালক জাফরুল্লাহ কাজল। আটক অপর ব্যক্তি চাঁপাইনবাবগঞ্জের কানসাট বিশ্বনাথপুর এলাকার সাজিদ। সে রাজশাহীর একটি ওষুধের দোকানের কর্মচারী।

স্থানীয় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফরের পরিদর্শক সাইফুর রহমান রাতে গণমাধ্যমকে বলেন, ‘মাদকবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে টোলঘর এলাকায় অভিযান চালানো হয়। এ সময় রাজশাহী জেলা পরিষদের একটি পাজেরো জিপ গাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়।

ওই গাড়ির ভেতর একটি ব্যাগে পাঁচটি কোকাকোলার বোতল ভর্তি লুজ ফেনসিডিলসহ তাদের আটক করা হয়। পরে তাদের চাঁপাইনবাবগঞ্জ সার্কিট হাউসে নিয়ে আসা হয় পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার জন্য। এ ঘটনায় প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

জাফরুল্লাহ কাজল জানান, আটক ব্যক্তিরা বর্তমানে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সার্কিট হাউসে প্রশাসনের জিম্মায় রয়েছেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল হাফিজ বলেন, নুরুজ্জামানের সরকারি গাড়িতে করে ফেনসিডিল নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। এসময় নুরুজ্জামান ওই গাড়িতেই ছিলেন। তাকে আটকের পর তিনি নিজেকে রাজশাহী জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বলে পরিচয় দেন। তখন তাকে সার্কিট হাউসে নেয়া হয়।

তার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হবে কি না- জানতে চাইলে জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল হাফিজ বলেন, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর যেটা চাইবে, সেটাই হবে।

এ ব্যাপারে রাজশাহী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার বলেন, টেলিভিশনে নুরুজ্জামানকে আটকের খবর দেখছি। এরচেয়ে বেশিকিছু আমার জানা নেই। এ ব্যাপারে কেউ আমাকে জানাননি।

প্রসঙ্গত, নুরুজ্জামান ২০১৫ সালে রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ছিলেন।