• আজ ২রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

জানুয়ারির শেষে বা ফেব্রুয়ারির শুরুতে ভ্যাকসিন আসছে দেশে

◷ ৩:৫৪ অপরাহ্ন ৷ সোমবার, ডিসেম্বর ২১, ২০২০ জাতীয়
pm

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- জানুয়ারি মাসের শেষে অথবা ফেব্রুয়ারির শুরুতে বাংলাদেশে করোনা ভ্যাকসিন আসছে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। তিনি জানান, প্রথম দফায় তিন কোটি ডোজ আনা হবে। পরে মে-জুনের মধ্যে আরও ছয় কোটি ডোজ আসবে।

সোমবার (২১ ডিসেম্বর) মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকের পর সাংবাদিকদের ব্রিফ করার সময় সচিব এই তথ্য জানান। প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে অনলাইনে এ সভায় সভাপতিত্ব করেন। মন্ত্রীরা সচিবালয়ে বৈঠকে অংশ নেন।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব জানান, টিকা দিতে ইতোমধ্যে গ্রাম পর্যায় পর্যন্ত প্রশিক্ষণ শুরু হয়েছে। মূলত ইপিআই (সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূাচ) এবং সরকারি হাসপাতালের মাধ্যমে টিকা দেওয়া হবে। বেসরকারি হাসপাতালগুলোকে এ কার্যক্রমে সম্পৃক্ত করতে আলোচনা চলছে।

ড. খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম আরো বলেন, ‘আজকের বৈঠকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ভ্যাকসিন আমদানি ও প্রয়োগের বিষয়টি তুলে ধরেন। আগামী জুন মাসের মধ্যে সাড়ে চার কোটি মানুষ ভ্যাকসিন পাবে। একজন ব্যক্তি দুই ডোজ করে ভ্যাকসিন পাবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদিত যেকোনো ভ্যাকসিন দেশে আসতে পারে।’

মন্ত্রিপরিষদ সচিব আরও বলেন, ‘বিশ্বের অনেক দেশেই করোনা পরিস্থিতির অবনমন হয়েছে। কোনো কোনো দেশ শক্ত অবস্থান নিয়েছে। আমাদেরও এসব বিষয়ে আরো কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে।’

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা উল্লেখ করে সচিব সাংবাদিকদের বলেন, ‘নো মাস্ক নো সার্ভিস’—এই নীতি কঠোরভাবে পালনের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের এ বিষয়ে আরো তৎপর হওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি।’