• আজ ১১ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

প্রধানমন্ত্রীর পরিকল্পনায় নতুনভাবে সাজবে টিএসসি, চলছে নকশার কাজ

◷ ৮:৫৩ অপরাহ্ন ৷ সোমবার, ডিসেম্বর ২১, ২০২০ শিক্ষাঙ্গন
TSC

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকাঃ ষাটের দশকের শুরুতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসি) নকশা করেছিলেন গ্রিক স্থপতি কনস্ট্যান্টিন ডক্সিয়াডেস। পূর্ব পাকিস্তানের তৎকালীন সামরিক শাসক জেনারেল আইয়ুব খানের আমলে ভবনটির নির্মাণকাজ শেষ হয়। এই ভবনটি এখন ভেঙে ফেলা হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি ভবনটিকে আধুনিক ভবন হিসেবে দেখতে চান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ জন্য তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে ভবনের নকশা প্রস্তুত করার নির্দেশ দিয়েছেন। টিএসসিকে নতুন করে গড়ার লক্ষ্যে এরই মধ্যে কাজ শুরু করেছে গণপূর্ত অধিদফতর। এই অধিদপ্তরের প্রকৌশলীরা টিএসসি ভবনের নকশা প্রণয়নের কাজ করছেন বলে সংশ্লিষ্ট ‍সূত্রে জানা গেছে।

জানা গেছে, গত ২ সেপ্টেম্বর এক সভায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সংযুক্ত হয়ে টিএসসি, শাহবাগ পাবলিক লাইব্রেরি ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালকে নতুন করে সাজানোর কথা জানান প্রধানমন্ত্রী। এরপর টিএসসি ভবন নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মধ্যে আলোচনা শুরু হয়।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর এক ভার্চ্যুয়াল আলোচনা সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান বলেন, ‘১৯৬৪ সালে টিএসসি নির্মিত হয়েছিল। তখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৩ হাজার ৮০০, শিক্ষকের সংখ্যা ছিল ২০০ থেকে কিছু বেশি। এটাকে বিবেচনায় রেখে এটুকু জায়গায় টিএসসির ভবন, মিলনায়তন ও ফ্যাসিলিটিজ তৈরি করা হয়েছিল। আজ বিশ্ববিদ্যালয়ে ২ হাজারের বেশি শিক্ষক আর ৪০ হাজারের বেশি শিক্ষার্থী আছেন। কিন্তু টিএসসি আগের মতোই আছে। প্রধানমন্ত্রী সে জন্যই আমাদের এটা পুনর্বিন্যাস করার নির্দেশনা দিলেন।’

এদিকে, টিএসসিকে নতুন করে গড়ার লক্ষ্যে এরই মধ্যে কাজ শুরু করেছে সরকারের গণপূর্ত অধিদপ্তর। নকশা প্রস্তুত প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে গণপূর্ত অধিদপ্তর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছ থেকে চাহিদাপত্র নিয়েছে।

এ ব্যাপারে গণপূর্ত অধিদপ্তরের ঢাকা সার্কেল-১৪ এর নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ মাহাবুবুর রহমান বলেন, স্থপতিরা আমাদের জানিয়েছেন তারা নকশা প্রস্তুত করেছে, তবে সেটি আমাদের কাছে এখনও এসে পৌঁছায়নি। তিনি আরও বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে পরিকল্পনার অনুমোদন পাওয়া গেলেই গণপূর্ত অধিদপ্তর তাদের কাজ শুরু করে দেবে।