সংবাদ শিরোনাম

মহানবীর (সা.) ১৪০০ বছর আগের যে বাণী সত্য প্রমাণ পেল বিজ্ঞানজামালপুরে ট্রাক চাপায় প্রাণ গেল বৃদ্ধারকালীগঞ্জে জন্ম নিবন্ধন কার্ড বিতরণে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগবাইডেন প্রশাসনে বিএনপি নেতা ড. মঈন খানের ভাগ্নি!প্রধানমন্ত্রীর পা ধরে হলেও আপনাদের প্রত্যাশা পূরণ করব : নানকহবিগঞ্জে স্কুলছাত্রকে হত্যা করে ফোনে অভিভাবকের কাছে চাঁদা দাবি, আটক ৩গোপালগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় সবজি ব্যবসায়ী নিহতসুষ্ঠু নির্বাচনকে গোরস্থানে সমাধিত করেছে সিইসি: রিজভীকোরআনে বর্ণিত ‘ত্বীন ফল’ বাণিজ্যিকভাবে চাষ হচ্ছে দিনাজপুরেসান্তাহার রেলওয়ে স্টেশনের অধিকাংশ সিসি ক্যামেরা নষ্ট, নজর নেই কর্তৃপক্ষের

  • আজ ১২ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সিএমএম কোর্টে তালা, বিচারকের অপসারণ চেয়ে আইনজীবীদের বিক্ষোভ

◷ ১২:৪১ অপরাহ্ন ৷ বুধবার, ডিসেম্বর ২৩, ২০২০ ফিচার
cmm-

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- এক আইনজীবীকে আসামির লকআপে দুই ঘণ্টা আটকে রাখার অভিযোগে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের ম্যাজিস্ট্রেটের অপসারণ চেয়ে বিক্ষোভ করছেন আইনজীবীরা।

বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বিক্ষুব্ধ আইনজীবীরা ম্যাজিস্ট্রেট আসাদুজ্জামান নূরের এজলাস কক্ষ থেকে সবাইকে বের করে তালা দিয়ে দেন। তারা ম্যাজিস্ট্রেটের অপসারণ দাবিতে বিক্ষোভ করছেন।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বিক্ষোভ চলছিল। ওই বিচারকের অপসারণ চেয়ে বিভিন্ন স্লোগান দিচ্ছেন আইনজীবীরা। ফলে সিএমএম আদালতের বিচারকাজ বন্ধ রয়েছে।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার লকআপে আটকে রাখার অভিযোগে ঢাকা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক বরাবর আবেদন দিয়েছেন রুবেল আহমেদ ভুঞা নামের এক আইনজীবী। তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চান।

ওই আবেদনে ভুক্তভোগী আইনজীবী বলেন, ‘মঙ্গলবার আমি ওই আদালতে মামলা পরিচালনা করতে যাই। এ সময় সকাল সাড়ে ১০টায় বিচারক এজলাসে উঠবেন বলে জানান। কিন্তু ১১টার দিকেও বিচারক না ওঠায় বিষয়টি পেশকারের কাছে জানতে চাই। পরে আদালতের কার্যক্রম শুরু হলে আমি বিচারকের সামনে যেতেই তিনি আমাকে বলেন, আমি কোর্টে বিশৃঙ্খলার চেষ্টা করছি।’

‘এরপর তিনি আমার মামলা না শুনে পরে আসতে বলেন। পরে গেলে আমাকে দুই ঘণ্টা লকআপে আটকে রাখেন এবং বলেন, আমার সনদ বাতিল করে দেবেন এবং সব ম্যাজিস্ট্রেটকে বলে দেবেন, আমার মামলা না শোনার জন্য। আমি বিষয়টিতে চরম অপমান বোধ করছি এবং উক্ত ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি’, যোগ করেন রুবেল আহমেদ ভুঞা।

এদিকে, আইনজীবীরা বিক্ষোভ শুরু করলে সিএমএম আদালতের মূল গেটে তালা লাগিয়ে দেন পুলিশ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আদালতের সামনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।