• আজ ২০শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় অস্ত্রসহ ১০ ডাকাত গ্রেফতার

২:০৪ অপরাহ্ন | শনিবার, ডিসেম্বর ২৬, ২০২০ ঢাকা
Faridpur news

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি: ফরিদপুরের ভাঙ্গায় ডাকাতির ঘটনায় দেশীয় পিস্তল ও ডাকাতির মালামালসহ ১০ জন ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে স্বর্ণ, ল্যাপটপ, নগদ টাকা ও মোবাইল উদ্ধার করা হয়।

আজ শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) সকাল ১১টায় ভাঙ্গা থানায় এক প্রেস রিলিজের মাধ্যমে এসব তথ্য গণমাধ্যমের কাছে তুলে ধরেন ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) মো. জামাল পাশা।

 তিনি বলেন, গত ১৩ ডিসেম্বর রাতে জেলার ভাঙ্গা থানার হামিরদী ইউনিয়নের ছোট হামিরদী গ্রামে দেলোয়ার ফকিরের বাড়িতে ডাকাতি সংঘঠিত হয়। ঐ দিনই দেলোয়ার ফকির বাদী হয়ে ভাঙ্গা থানায় একটি ডাকাতি মামলা করেন। এ মামলায় হামিরদী গ্রামের চুন্নু মাতুব্বর (৩৫) ও অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামী করা হয়। পরবর্তীতে গত ১৭ ডিসেম্বর রাতে হামিরদী ইউনিয়নের বড় হামিরদী গ্রামের কাজী ফাহাদ ইসলাম শোভনের বাড়িতে আরও একটি ডাকাতি সংঘটিত হয়। তিনি ঐ দিনই ভাঙ্গা থানায় ডাকাতি মামলা করেন।

তিনি আরও জানান, পুলিশ ডাকাতি মামলার এজাহার ভূক্ত আসামী চুন্নু মাতুব্বরকে গ্রেফতার করে কোর্টে প্রেরণ করলে  সে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেয়। তার দেওয়া তথ্যানুযায়ী পুলিশ ভাঙ্গা ও  ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে গত ২৪ ও ২৫ ডিসেম্বর ১০ জনকে গ্রেফতার করেন। এর মধ্যে ঢাকার মিরপুর-১১তে অবস্থিত পলাশ জুয়েলার্সের মালিক পলাশ কর (২৮) কে ডাকাতির স্বর্ণ কেনার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত ডাকাত দলের অন্য সদস্যরা হচ্ছেন, গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার ধানজাইল গ্রামের ইসলাম মোল্লা (৫২) ও পদ্মবিল গ্রামের বেলায়েত শেখ (৩৫), ভাঙ্গার ব্রাহ্মণকান্দা গ্রামের হাবিব মুন্সী (৪৫) ও মোশা বেপারী (৪৫), ফেনীর দাগনভূইয়া উপজেলার মেহেদীপুর গ্রামের বদিউল আলম (৫০), গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার মাতলা গ্রামের ফরিদ খাঁ, ফরিদপুরের সালথা উপজেলার ভলিভদ্রদী গ্রামের ওবায়দুর মাতুব্বর (২৬), ভাঙ্গার বাররা গ্রামের সুজন সর্দার (৩৯), গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার চরবাহাড়া গ্রামের সহিদুল শেখ (৩৩)।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও ভাঙ্গা থানার উপ-পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ বলেন, ডাকাত শহিদুল শেখের কাছ থেকে ১টি দেশি পিস্তল ও ৪ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। তার নামে পুলিশ বাদী হয়ে ভাঙ্গা থানায় একটি অস্ত্র আইনে শনিবার সকালে মামলা করেছে। অন্য ডাকাতদের কাছ থেকে দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। ডাকাতদের কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া মালের মধ্যে রয়েছে ৪ ভরি আট আনা গলিত স্বর্ণ, ১টি স্বর্ণের চেইন, মোবাইল ফোন ৭টি, ১টি এইচপি ল্যাপটপ, ১টি ট্যাব, নগদ ৫৪ হাজার আটশত টাকা।

ভাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ লুৎফর রহমান জানান, ডাকাত দলের এই ১০ সদস্যকে গত ২৪ ও ২৫ ডিসেম্বর গ্রেফতার করা হয়।