চলন্ত বাসে ধর্ষণচেষ্টা, ইজ্জত বাচাঁতে লাফ দিলো কলেজছাত্রী

rape-logo

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ বাসের চালক-হেলপার কতৃক ধর্ষণচেষ্টার পর সম্ভ্রম বাঁচাতে চলন্ত বাস থেকে লাফ দিয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন এক কলেজছাত্রী। শনিবার সন্ধ্যায় সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার সুজানগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শনিবার বিকেল সাড়ে ৫টায় সিলেট থেকে দিরাইয়ের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা একটি যাত্রীবাহী লোকাল বাস দিরাইয়ের পার্শ্ববর্তী কর্ণগাও এলাকায় আসার পর অন্যান্য যাত্রীদেরকে নামিয়ে দেয়। এসময় বাসে একমাত্র যাত্রী ছিলেন ঐ কলেজ ছাত্রী। তাকে একা পেয়ে চলন্ত বাসে হেলপার মেয়েটিকে বার বার ধর্ষণের চেষ্টা চালায় এবং টেনে হিঁচড়ে মেয়েটির শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে।

এ সময় মেয়েটি ইজ্জত বাচাঁতে চলন্তবাসের জানালা দিয়ে লাফ দিলে সে পার্শ্ববর্তী খাদে পড়ে মাথায় ও পায়ে আঘাতপ্রাপ্ত হন। পরবর্তীতে আশপাশের লোকজন মেয়েটির আর্তচিৎকার শুনে এগিয়ে আসলে চালক ও হেলপার পালিয়ে যায়।

পরে হাবিব মিয়া নামে একজন ব্যক্তি ঐ মেয়েটিকে উদ্ধার করে দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে ডাক্তার তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

এ ব্যাপারে দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকের অফিসার ডা. বিদ্যুৎ রঞ্জন তালুকদার জানান, কলেজ ছাত্রীকে আহত অবস্থায় মো. হাবিবুর রহমান নামে এক ব্যক্তি নিয়ে আসে। তার অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে সিলেটে প্রেরণ করা হয়েছে।

এদিকে এমন শ্লীলতাহানির ঘটনার খবর পেয়ে ছাত্রছাত্রীসহ স্থানীয় লোকজন সন্ধ্যায় রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ মিছিল করে এবং ঐ চালক ও হেলপারকে দ্রুত গ্রেফতার করে কঠোর শাস্তি প্রদানের দাবী জানান।

দিরাই থানার অফিসার ইনচার্জ আশরাফুল ইসলাম জানান, বাসটি জব্দ করা হয়েছে। চালক ও হেলপারকে ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান তিনি।

◷ ১১:১৮ অপরাহ্ন ৷ শনিবার, ডিসেম্বর ২৬, ২০২০ অপরাধ