বাসে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা: গাড়ি জব্দ, অভিযুক্তরা পলাতক

◷ ১২:০৬ পূর্বাহ্ন ৷ রবিবার, ডিসেম্বর ২৭, ২০২০ সিলেট
sunamganag

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জে চলন্ত বাসে কলেজছাত্রীকে চালক হেলপার মিলে ধর্ষণের চেষ্টা করার অভিযোগ উঠেছে। এঘটনার পর থেকে গাড়ির চালক হেলপার গা ডাকা দিয়েছে। ওই কলেজ ছাত্রী দিরাই পৌর সদরের বাসিন্দা।

শনিবার দুপুরে দিরাই-মদনপুর সড়কের সুজানগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এদিকে এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে সন্ধ্যায় দিরাই থানা পয়েন্টে অবরোধ করে জনগণ।

দিরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশরাফুল ইসলাম বলেন, দিরাই বাসস্ট্যান্ডে গাড়ি রেখে চালক হেলপার পালিয়ে গেছে। গাড়িটি আটক করা হয়েছে।

স্থানীয় এলাকাবাসী ও মেয়েটির চাচা বলেন, সিলেট এলাকায় তার বোনের বাড়িতে গিয়েছিল। আজ তার বোন জামাই অজিত দাস ফাহাদ এন্ড মাইশা পরিবহন নামের (সিলেট-জ ১১-০৭২৩) লোকাল বাসে তুলে দেয়।

পথিমধ্যে গাড়ির যাত্রীরা একে একে নেমে গেলে গাড়িটি একপর্যায়ে ফাঁকা হয়ে যায়। লোকাল বাস হলেও নতুন যাত্রী উঠানো থেকে বিরত থাকে গাড়ির স্টাফরা। এক প্রযায়ে চালক হেলপার মিলে ধর্ষণের চেষ্টা করে।

সুজানগর এলাকা এসে নিজেকে রক্ষা করতে গাড়ি থেকে নিচে লাফ দেয় কলেজ শিক্ষার্থী। এতে তার মাথা, হাতসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে আহত অবস্থায় রাস্তার পাশে পরে থাকতে দেখে তাকে উদ্ধার করে দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয় স্থানীয়রা।

পরে থাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজে হাসপাতালে প্রেরণ করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সংবাদ পেয়ে মেয়েটির স্বজন ও থানা পুলিশ হাসপাতালে আসে।

দিরাই হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক বিদ্যুৎ দাস বলেন, মেয়েটির মাথায় হাতে জখম ছিল। তাকে সিলেটে ওসমানী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।