‘জিয়াকে বাদ দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস লেখা হলে তা অসম্পূর্ণ থেকে যাবে’

৬:২৪ অপরাহ্ন | রবিবার, ডিসেম্বর ২৭, ২০২০ জাতীয়
goyessor

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- জিয়াউর রহমানকে ইতিহাস থেকে মুছে দেয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে মন্তব্য করে বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, জিয়াকে বাদ দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস লেখা হলে তা অসম্পূর্ণ থেকে যাবে।

তিনি বলেন, জিয়াউর রহমানকে যারা মুছে দিতে চাইছে, তারাই একদিন ইতিহাস থেকে মুছে যাবে।

জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা-জাসাসের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে রোববার (২৭ ডিসেম্বর) নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

গয়েশ্বর রায় বলেন, আজকে বাংলাদেশের দিকে তাকালে দেখা যায়, বর্তমান সরকার জাতীয় স্বার্থ বিসর্জন দিচ্ছে ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য, চিরস্থায়ী ক্ষমতায় থাকার জন্য, বাইরের শক্তিকে তারা (সরকার) সন্তুষ্ট করে, জনগনকে বঞ্চিত করে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় অনেকটা জবরদখল করে আছে এবং এটাকে দীর্ঘমেয়াদি করার জন্যই আরো বিদেশী স্বার্থে দেশের স্বার্থ জলাঞ্জলি দিচ্ছে। বিএনপি জাতীয় স্বার্থ বিসর্জন দিয়ে কারো সাথে বন্ধুত্ব করে না।

তিনি বলেন, বিজয়ের এই মাসে আমি বলব, আমাদের এই বিজয় এখনো পূর্ণাঙ্গ হয়নি। আমরা হয়ত পতাকা পেয়েছি, আমরা জাতীয় সঙ্গীত পেয়েছি, আমরা একটি ভৌগলিক অবস্থান পেয়েছি কিন্তু এখনো আমরা সার্বভৌম না। নিজের সিদ্ধান্ত নিজে নিতে পারি না, পরদেশের সিদ্ধান্তের দিকে তাকিয়ে থাকতে হয়।

যেদিন আমরা পূর্ণাঙ্গ স্বাধীনতা অর্জন করতে পারবো, সেদিন আমরা গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে পারবো। সেইদিন শহীদ জিয়াসহ শহীদদের প্রতি সম্মান জানানোর যোগ্যতা আমরা অর্জন করবো।

দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে গৃহবন্দি করে রেখে সরকার দেশের গণতন্ত্রকে বন্দি করে রেখেছে বলে মন্তব্য করে বিএনপির এই সিনিয়র নেতা বলেন. এই অবস্থা থেকে উত্তরণে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশের পরিবর্তনের জন্য মাঠে নামতে হবে, আমাদেরকে এক হতে হবে, এক হয়ে আমাদের কাজ করতে হবে। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নেতৃত্বে দল এগিয়ে যাবে। বিএনপিকে ছেড়ে জনগন কখনো ছেড়ে যায়নি, যাবেও না। কারণ জনগন মনে করে বিএনপি একটি মাত্র দল যেটা দেশের দল, একটি মাত্র দল যেটা দেশের কথা বলে, একটি মাত্র দল যেটা গণতন্ত্রের কথা বলে, একটি মাত্র দল যারা লুটপাট করে অর্থ সম্পদ বিদেশে পাচার করে না।

নয়া পল্টনে আলোকচিত্র প্রদর্শনীর এই অনুষ্ঠানে জাসাসের সভাপতি অধ্যাপক মামুন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক হেলাল খান ছাড়াও কেন্দ্রীয় নেতা বাবুল আহমেদ, আহসান উল্লাহ চৌধুরী, মীর সানাউল হক, শাহরিন ইসলাম শায়লা, লিয়াকত আলী, আরিফুর রহমান মোল্লা, জাহাঙ্গীর আলম রিপন, রফিকুল ইসলাম, জাকির হোসেন রোকন, আমিনুল হক, রফিকুল ইসলাম স্বপন, মেজর (অব.) মিজানুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।