সংবাদ শিরোনাম

হিলিতে ৩ ভুয়া চিকিৎসকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের কারাদন্ডমিনুসহ বিএনপির চার নেতার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার আবেদনআত্মহত্যার ২ মাস পর ছড়ানো হলো স্কুলছাত্রীর আপত্তিকর ভিডিও, অভিযুক্ত পলাতকচট্টগ্রাম কারাগার থেকে পালানো আসামি রুবেল নরসিংদীতে গ্রেপ্তারবাস থেকে নারীকে ছুড়ে ফেলা সেই চালক-হেলপার গ্রেফতারছাগল চুরির ঘটনায় জড়িত নন- সংবাদ সম্মেলনে দাবি সেই ছাত্রলীগ নেতারযতদিন বেঁচে আছি, আমার এলাকার একটি লোক না খেয়ে থাকবে না: জেএইচএম ডিএমডিটেকনাফে বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২, সাড়ে ৩ লাখ ইয়াবা উদ্ধারশাহজাদপুরের খুকনী ইউনিয়ন আ.লীগের সম্মেলনে সভাপতি শাহজাহান, সম্পাদক আফাজহাজি সেলিমের আপিলের রায় পড়া শুরু

  • আজ ২৪শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কুড়িগ্রাম পৌরসভায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী জয়ী

৭:৩৩ অপরাহ্ন | সোমবার, ডিসেম্বর ২৮, ২০২০ রংপুর

ফয়সাল শামীম, স্টাফ রিপোর্টার: কুড়িগ্রাম পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী মো. কাজিউল ইসলাম নৌকা প্রতীক নিয়ে বিপুল ভোটে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তার প্রাপ্ত ভোট ১৯,৭৭৩। তিনি ১৪,৩০৫ ভোট বেশি পেয়ে বিজয়ী হয়ৈছেন।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মো. শফিকুল ইসলাম বেবু ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৫,৪৬৮ ভোট। প্রতিদ্বন্দ্বী অন্যান্য প্রার্থীদের মধ্যে বিএনপি’র বিদ্রোহী প্রার্থী মো. আবু বকর সিদ্দিক নারিকেল গাছ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৫,২৯৩ ভোট। এছাড়াও বাংলাদেশ ইসলামি শাসনতন্ত্র আন্দোলন সমর্থিত প্রার্থী আব্দুল মজিদ হাতপাখা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৪,০৫৮ ভোট। এদিকে আওয়ামী লীগের বহিস্কৃত প্রার্থী মো. সাইদুল হাসান দুলাল জগ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১,৮৩৭ ভোট।

জেলা নির্বাচন ও রিটার্ণিং অফিসার মো. জাহাঙ্গীর আলম রাকিব নির্বাচনের ফলাফলের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ভোট সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। তুচ্ছ দু’একটি ঘটনা ছাড়া আনন্দমুখর পরিবেশে ভোট সম্পন্ন হয়েছে। কোন ধরণের অনিয়ম, অব্যবস্থাপনা ও ভোট জালিয়াতির কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

এবারের কুড়িগ্রাম পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী ৫জন, ৮টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর ৩৯জন এবং ৩টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে মহিলা কাউন্সিলর ১৩জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ পৌরসভার ২৪টি কেন্দ্র ও ১৭৩টি কক্ষ রয়েছে। এর মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ ১৭টি এবং সাধারণ ৭টি। কুড়িগ্রাম পৌরসভায় মোট ভোটার ৫৬ হাজার ৩৯৫ জন তম্মধ্যে নারী ভোটার ২৯ হাজার ৪৮জন আর পুরুষ ভোটার ২৭ হাজার ৩৪৭জন। এই প্রথমবারের মত ইভিএম পদ্ধতিতে পৌরসভার এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

কুড়িগ্রাম পৌরসভা নির্বাচনে সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন করতে কেন্দ্রগুলোতে ৭জন পুলিশসহ ১৭জন আনসার সদস্য দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে ৩প্লাটুন বিজিবি, র‍্যাবের ৩টি টিম ও পুলিশের ২টি টিম সহযোগিতা করে। নির্বাচনে একজন জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, প্রতিটি ওয়ার্ডে ১জন করে ম্যাজিস্ট্রেট ও ৮টি মোবাইল টিম দায়িত্বে ছিলেন। এছাড়াও সাদা পোষাকে ৭সদস্য করে ৩টি টিম কাজ করে।