সংবাদ শিরোনাম

টিকা সবাইকে দিয়ে নিই, তারপর আমি নেবো: প্রধানমন্ত্রীসুনামগঞ্জে সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী ২ মাসের অন্তঃসত্ত্বা, ১ জন আটকসংঘর্ষ, গোলাগুলি অতঃপর দুই লাশে শেষ হলো চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনরংপুরে ইটভাটায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, ১৯ লাখ টাকা জরিমানানির্বাচন বর্জন করলেন ইসলামী আন্দোলনের মেয়র প্রার্থী জান্নাতুল ইসলামদেশের প্রথম করোনা টিকা নিলেন নার্স রুনুমুন্সিগঞ্জে শিশু ধর্ষণের দায়ে যুবকের যাবজ্জীবনদেশে করোনা টিকা কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রীনজিরবিহীন নির্বাচন, দিনের ভোট রাতে: ইসিতে বিএনপির অভিযোগমাদারীপু‌রে শাহেদ বেগ হত্যা মামলায় দুইজ‌নের মৃত্যুদণ্ড

  • আজ ১৩ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মাদ্রাসাছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে শিক্ষককে ন্যাড়া করে পুলিশে দিলো জনতা

◷ ২:৪৯ অপরাহ্ন ৷ শুক্রবার, জানুয়ারী ১, ২০২১ চট্টগ্রাম
cadpur

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ চাঁদপুরের কচুয়ায় একটি কওমী মাদ্রাসার হেফজখানার ১৩ বছরের ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে শিক্ষক ওমর ফারুককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় মামলা দায়ের পর বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। এদিকে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ শিক্ষক ওমর ফারুককে বহিষ্কার করেছে।

জানা যায়, উপজেলার গোহট উত্তর ইউনিয়নের ওই মাদ্রাসায় ওই ছাত্রকে শিক্ষক ওমর ফারুক ধর্ষণ করে। বলাৎকারের বিষয়ে যেনো কাউকে কিছু না বলে, বললে তাকে মারধর করা হবে বলে হুমকি প্রদান করেন হাফেজ ওমর ফারুক। পরে সন্ধ্যার দিকে ছেলেটির পায়ুপথে ব্যাথা অনুভব হলে সে বাড়ি গিয়ে সমস্ত ঘটনা তার মাকে খুলে বলেন।

তার মা ছেলেটির বাবাকে জানালে তিনি স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যাক্তিদের বিষয়টি অবহিত করেন। এতে করে এলাকার লোকজন বিষয়টি জেনে ফেলেন এবং হুজুরের বিচারের দাবিতে মাদ্রাসা ঘিরে বিক্ষোভ সমাবেশ করেন। উত্তেজিত জনতা হুজুরের মাথার চুল কেটে ফেলেন এবং গলায় জুতার মালা পরিয়ে ঘুরাতে চাইলে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যান। এ ব্যাপারে ভিকটিমের বাবা বাদী হয়ে কচুয়া থানায় মামলা দায়ের করেন।

বলাৎকারের শিকার হওয়া শিশুটির বাবা জানান, একমাস আগেও সে আমার ছেলেকে বলাৎকার করেছিল কিন্তু ভয়ে আমার ছেলে আমাকে কিছু বলেনি। গতকাল বলাৎকারের পরে আমার ছেলে ব্যাথা অনুভব করলে তার আম্মাকে সব কিছু খুলে বলে এবং আগের ঘটনাও বলে দেয়। আমরা হুজুর নামক এই নরপশুর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

কচুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মহিউদ্দিন বলেন, ভিকটিম ছাত্র আমাদের জানিয়েছে তাকে ২৮ ডিসেম্বর বেলা ১১টার দিকে বলাৎকার করা হয়। আমরা বিষয়টি জানার পর ২৯ ডিসেম্বর সন্ধ্যার দিকে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসি। পরে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।