সংবাদ শিরোনাম

লালমনিরহাটে ট্রাকচাপায় ২ পুলিশ সদস্য নিহতওয়াজে কোরআন-হাদিসের রেফারেন্স বাধ্যতামূলক চেয়ে লিগ্যাল নোটিশ ত্রিশালে সাব্বিরকে সহয়তার হাত বাড়াল রকিব ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনআড়াইহাজারে ১২ হাজার কেজি নিষিদ্ধ পলিথিন উদ্ধার,  চালক ও হেলপার আটকভূঞাপুরে খানাখন্দে ভরা ৮০০ মিটার সড়ক, দুর্ভোগে কয়েক গ্রামের লাখো মানুষকোটালীপাড়ায় ফের অগ্নিকান্ড, ৬টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পুড়ে ছাইজামালপুরে পৃথক দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত টাঙ্গাইলে বাসের ধাক্কায় মাইক্রোবাসের ৮ যাত্রী আহতইশরাকের খালাসের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করল দুদকভারত কিছু ভ্যাকসিন বাংলাদেশকে উপহার দেবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • আজ ৪ঠা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সেফুদার জমিতে কলেজ উদ্বোধন করলেন ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী

◷ ১১:১৬ অপরাহ্ন ৷ শনিবার, জানুয়ারী ২, ২০২১ চট্টগ্রাম
sefu

মাহফুজুর রহমান, চাঁদপুর প্রতিনিধিঃ চাঁদপুরের শাহরাস্তির চেড়িয়ারা গ্রামের অস্ট্রিয়া প্রবাসী ও সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কিত ব্যক্তিত্ব সেফাতুল্লাহ ওরফে সেফুদার জমিতে তার মায়ের নামেই গড়ে তোলা হচ্ছে একটি কলেজ। সেই কলেজের সাইনবোর্ডের উপরেও লেখা সেফুদার খ্যাতিলাভ করা উক্তি ‘লাভ ইজ পাওয়ার’।

শুক্রবার বিকেলে প্রস্তাবিত ‘হাসমতেন্নেচ্ছা হাসু সাইন্স এন্ড টেকনোলজি নামের এই কলেজের ভিত্তিপ্রস্তর পরিদর্শনশেষে এর উদ্ধোধণ করেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডাঃ জাফরুল্লাহ চৌধুরী। এসময় প্রত্যন্ত অঞ্চলের শিক্ষার্থীদের কর্মমুখী শিক্ষা দেওয়াসহ বেকার সমস্যা সমাধাণে গ্রামে-গঞ্জে কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠায় সরকারের পাশাপাশি বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

তিনি বলেন, ‘দেশকে এগিয়ে নিতে হলে আগে শেকড় পোক্ত করতে হবে। স্বাধীনতাকালীন যুদ্ধের সময় আমি এই জনপদে এসেছিলাম। তখন এটি প্রত্যন্ত গ্রাম ছিল। এই গ্রামের মজুমদার বাড়ীটি স্বাধীনতার সময় মুক্তিযোদ্ধাদের সবচে বড় ক্যাম্প ছিল। যুদ্ধের শেষের দিকে এই পুরো মজুমদার বাড়ীটি পাকবাহিনী জ্বালিয়ে দেয় আর এই সত্যটা স্থানীয় জনসাধারণ ও দেশবাসির জানা জরুরি।চাঁদপুর ও লক্ষীপুর জেলার মুক্তিযোদ্ধারা তৎকালীন ক্যাম্পের ঐতিহাসিক স্মৃতিবিজড়িত এ স্থানটিকে সরকারীভাবে স্বীকৃতি দেওয়া সময়ের দাবী বলেও মন্তব্য করেন তিনি’।

এসময় তিনি এই অঞ্চলে মরহুম ড. এম এ সাত্তার ও ড. এলেন সাত্তারের এ উপজেলাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে নারী শিক্ষা কার্যক্রম অনেক অবদানের কথা স্মৃতিচারণ করেন।

‘হাসমতেন্নেচ্ছা হাসু সাইন্স এন্ড টেকনোলজি কলেজে’র অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা মুক্তিযোদ্ধা শামসুল হক মজুমদারের সভাপতিত্বে ও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের গনমাধ্যম উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টুর সঞ্চালনায় এতে অতিথিরা বক্তব্য রাখেন- শাহরাস্তি উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি হুমায়ুন কবির, স্থানীয় সমাজ সেবক সেন্টু মজুমদার, গণস্বাস্থ্যের ডাঃ রৌশন জাহান পিংকি সহ অন্যান্যরা।

সেফুদার বড় ভাই ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি শামছুল হুদা মজুমদার বলেন, বিশ্ব শান্তি মিশনের সহযোগিতা ও সৌজন্যে কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে। আমার ছোট ভাইয়ের প্রায় ৩০ শতাংশ জমিতে কলেজ হচ্ছে। পরবর্তীতে আরও জমির প্রয়োজন হলে আমাদের জমি দেবো। কলেজ পরিচালনার জন্য আর্থিক জোগান দেবে আমার ভাইয়েরা।

এছাড়া বিশ্ব শান্তি মিশন থেকেও আমরা সহযোগিতা পেতে পারি। আগামী বছর যে এসএসসি পরীক্ষা হবে তার রেজাল্ট হলে এখানে এইচএসসি পর্যায়ে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হবে। তবে কলেজটি এখনো অনুমোদন হয়নি। ভর্তির আগে অনুমোদন নেওয়া হবে। এখানে গণস্বাস্থ্য শিক্ষাকেন্দ্র করারও আহ্বান জানিয়েছি।

সেফুদার জমি ক্রোকের বিষয় তিনি জানান, ‘আমার ভাইয়ের জমি ক্রোকও হয়নি, কোনও মামলাও নেই। এটি একটি ভাওতাবাজি। ক্রোক সম্পর্কিত কোনও নোটিশও আমরা পাইনি।