কষ্টিপাথর দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে সংগ্রহ করে পাচার করতেন তারা

◷ ১২:১২ পূর্বাহ্ন ৷ বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ১৪, ২০২১ ময়মনসিংহ
Mymensing news

কামরুজ্জামান মিন্টু, ষ্টাফ রিপোর্টারঃ ময়মনসিংহে জুয়েলারি দোকানে অভিযান চালিয়ে ৩৬ কেজি ৫০০ গ্রাম ওজনের কষ্টিপাথরসহ সাত চোরাকারবারিকে আটক করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)-১৪। শহরের শিববাড়ি এলাকার রানা জুয়েলার্স থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন – মোঃ হোসেন আলীর ছেলে মোহাম্মদ রুকন (৪০), মৃত ইউসুফ আলীর ছেলে শেখ শামসুল আলম (৪৬), মৃত তোফায়েল উদ্দিনের ছেলে মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ (৫৯), মোঃ জসিম উদ্দিনের ছেলে নিমন রানা (৩০), মৃত হোসেন আলীর ছেলে মো. আলাউদ্দিন (৭০), মৃত মহিউদ্দিন আহমেদের ছেলে নাজিরুল ইসলাম মিন্টু (৪৯)। তারা সবাই সদরের বাসিন্দা এবং ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার দিলীপ মজুমদারের ছেলে প্রদীপ মজুমদার (৬৬)।

বুধবার (১৩ জানুয়ারি) দুপুরে নগরীর আকুয়ায় র‍্যাব-১৪’র ব্যাটালিয়ন সদর কমপ্লেক্সে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান র‍্যাব-১৪’র অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল এফতেখার উদ্দিন। এর আগে মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) দিবাগত রাতে ওই জুয়েলার্স থেকে কষ্টিপাথর তাদের আটক করে র‍্যাব।

এ সময় লেফটেন্যান্ট কর্নেল এফতেখার উদ্দিন বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার দ্বিবাগত মধ্যরাতে নগরীর শিববাড়ি এলাকায় অভিযান চালায় র‍্যাব-১৪’র একটি দল। অভিযানে শিববাড়ি ওভারব্রিজের নিচে রানা জুয়েলার্স থেকে ওই সাত চোরাকারবারিকে আটক করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে প্রায় ৩৬ কেজি ৫০০ গ্রাম ওজনের ৪টি কষ্টিপাথর ও ছয়টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরো বলেন, আটককৃতরা কষ্টিপাথর পাচারকারী চক্রের সদস্য। তারা দীর্ঘদিন ধরে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে কষ্টিপাথর সংগ্রহ করে অবৈধভাবে পাচার করে আসছিল। চক্রের অন্যান্যদের ধরতে র‍্যাবের অভিযান অব্যাহত থাকবে।