🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ বুধবার, ২০ শ্রাবণ, ১৪২৮ ৷ ৪ আগস্ট, ২০২১ ৷

ট্রাম্পের বিদায়, শুভেচ্ছার বন্যায় ভাসছেন বাইডেন-হ্যারিস

tramp
❏ বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ২১, ২০২১ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- শ্বেতপ্রাসাদে ডোনাল্ড ট্রাম্পের অধ্যায় যেখানে শেষ, সেখান থেকেই শুরু হলো জো বাইডেনের। বুধবার সকালে যে হোয়াইট হাউস ছেড়ে সুদূর ফ্লোরিডায় পাড়ি জমিয়েছেন সদ্য সাবেক হয়ে যাওয়া প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প, দুপুর গড়াতে না গড়াতে সেই বাড়িকেই স্থায়ী ঠিকানা বানালেন বাইডেন। বিদায়বেলায় ট্রাম্পের পাশে ছিলেন স্ত্রী মেলানিয়া, বাইডেনও তার নতুন ঠিকানায় প্রবেশ করেছেন জীবনসঙ্গীর হাত ধরে।

স্থানীয় বুধবার সময় বেলা ১১টার পর ক্যাপিটল ভবনে জো বাইডেন শপথ নেন। তার আগে শপথ নেন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম নারী ভাইস-প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস।

শপথের কিছু সময় আগে নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিতে অভিষেক অনুষ্ঠানস্থলে এসে উপস্থিত হন জো বাইডেন ও তার স্ত্রী জিল বাইডেন। এর আগেই সেখানে পৌঁছেছিলেন কমলা হ্যারিস ও তার স্বামী ডাও এমহফ। একসঙ্গে তারা ক্যাপিটল ভবনের সিঁড়ি দিয়ে ওপরে ওঠেন। সে সময় তাদের স্বাগত জানান মার্কিন আইনপ্রণেতারা।

অনুষ্ঠানস্থলে আগে থেকেই হাজির ছিলেন সুপ্রিম কোর্টের বিচারকেরা। বিচারপতি সোনিয়া সটোমেয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসকে শপথ পাঠ করান। যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম নারী, প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ এবং প্রথম দক্ষিণ এশীয় বংশোদ্ভূত ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন তিনি।

৪৬তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে জো বাইডেনকে শপথ পাঠ করান প্রধান বিচারপতি জন রবার্টস। ২০০৯ ২০১৩ সালে বারাক ওবামার ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেওয়ার সময় যে পারিবারিক বাইবেলের ওপর হাত রেখে শপথ নিয়েছিলেন, প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিতে সেই একই বাইবেল ব্যবহার করেন বাইডেন। বাইবেলটি পাঁচ ইঞ্চি পুরু। ১৮৯৩ সাল থেকে তার পরিবারের সংগ্রহে রয়েছে এটি।

এদিকে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর দেশের নতুন শাসকের অভিষেকে শুভেচ্ছার বন্যা বয়ে যাচ্ছে বিশ্বজুড়ে। যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও ভাইস-প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের শপথ গ্রহণের পরপরই তাদের জন্য শুভেচ্ছার ঝড় ওঠে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে। বাইডেন-হ্যারিসকে অভিনন্দন জানিয়ে টুইট করেছেন বিভিন্ন দেশ, সংস্থা ও জোটের প্রধানরা।

ট্রাম্পের ‘বন্ধু’ ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বাইডেন শপথ নেয়ার কয়েক মিনিট পরেই টুইট করে বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের জন্য জো বাইডেনকে আমার আন্তরিক অভিনন্দন। ভারত-যুক্তরাষ্ট্র কৌশলগত অংশীদারিত্ব জোরদারে তার সঙ্গে কাজ করতে মুখিয়ে রয়েছি।

ডোনাল্ড ট্রাম্পের ব্রিটিশ সংস্করণ বলে পরিচিত যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন টুইটারে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথগ্রহণের জন্য জো বাইডেন এবং কমলা হ্যারিসকে তার ঐতিহাসিক অভিষেকের জন্য অভিনন্দন। জলবায়ু পরিবর্তন থেকে শুরু করে কোভিড পর্যন্ত যেসব বিষয় আমাদের সবার জন্য গুরুত্বপূর্ণ, সেসব ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্ব অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমি প্রেসিডেন্ট বাইডেনের সঙ্গে কাজ করার অপেক্ষায় রয়েছি।

ট্রাম্পের আমলে যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে ঘনিষ্ঠ হয়ে ওঠা ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু ভিডিওবার্তা পোস্ট করে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন নতুন মার্কিন প্রেসিডেন্টকে।

পিছিয়ে নেই পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানও। তিনি টুইটারে বলেছেন, প্রেসিডেন্ট বাইডেনকে অভিষেকের জন্য অভিনন্দন জানাই। বাণিজ্যিক-অর্থনৈতিক চুক্তি, জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে লড়াই, জনস্বাস্থ্যের উন্নতি, দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে আঞ্চলিক এবং এর বাইরে উন্নয়নের জন্য একটি শক্তিশালী পাক-মার্কিন অংশীদারিত্ব গড়ে তোলার লক্ষ্যে কাজ করার অপেক্ষায় থাকলাম।

স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজ বলেন, আজকের দিনটা চমৎকার। জো বাইডেন ও কমলা হ্যারিসের প্রশাসন যাত্রা শুরু করল। আমরা গণতন্ত্র এবং আরও ন্যায্য, টেকসই ও সর্বাত্মক বিশ্বব্যাপী শাসন ব্যবস্থার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কাজ করব।

এছাড়াও বাইডেনকে অভিনন্দন জানিয়েছেন ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট উরসুলা ভন ডার লিয়েন, জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইয়োশিহিদে সুগা, ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমান্যুয়েল ম্যাক্রোঁ, মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ, চিলির প্রেসিডেন্ট সেবাস্তিয়ান পিনেরা, ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস, পোপ ফ্রান্সিস প্রমুখ।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন