🕓 সংবাদ শিরোনাম

মাইক্রোবাসে যাত্রী পরিবহন: চালক ও হেলপারকে কারাদন্ডকরোনায় ঝালকাঠির জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সানিয়ার মৃত্যুময়মনসিংহ মেডিকেলে একদিনে মৃত্যু ১২, জেলায় নতুন আক্রান্ত ৪৪০ জনকুরবানীর মাংস রান্না করার সময় ভেসে উঠলো আল্লাহর নাম!ঝাঁকে ঝাঁকে ধরা পড়ছে ইলিশ, হাঁকডাকে সরগরম মৎস্যঘাটকেউ খোঁজ রাখেনি, পল্লী বিদ্যুতের তারে বিদ্যুতায়িত পাপেলের ভরসা এখন হুইল চেয়ারবগুড়ার শেরপুরে সাংবাদিকের বাড়ি দখলের চেষ্টা, থানায় অভিযোগজরুরি অবস্থা জারি করতে রাষ্ট্রপতির কাছে আইনজীবীর আবেদননোয়াখালথতে ঘরে আগুন দিয়ে নারীসহ ৩ জনকে পিটিয়ে আহত করেছে কিশোর গ্যাংওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে দেখা করলেন কাদের মির্জা

  • আজ বুধবার, ১৩ শ্রাবণ, ১৪২৮ ৷ ২৮ জুলাই, ২০২১ ৷

বিয়ে পাগল স্বামীর গোপনাঙ্গ ব্লেড দিয়ে কেটে দিলেন স্ত্রী!

mymensing news
❏ বুধবার, জানুয়ারী ২৭, ২০২১ ময়মনসিংহ

কামরুজ্জামান মিন্টু, ষ্টাফ রিপোর্টারঃ ময়মনসিংহের নান্দাইলে একাধিক বিয়ে পাগল সাদ্দাম হোসেন (৩২) নামে এক ব্যক্তির গোপনাঙ্গ ব্লেড দিয়ে কেটে দিয়েছেন প্রথম স্ত্রী। সাদ্দাম হোসেন কিশোরগঞ্জের ভৈরব এলাকার বাসিন্দা। তিনি ঢাকার একটি কোম্পানীতে চাকরী করেন।

বুধবার (২৭ জানুয়ারি) বিকালে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন নান্দাইল থানার ওসি মিজানুর রহমান। এর আগে রবিবার (২৪) জানুয়ারী সকালে নান্দাইল পৌরসভার কাকচর মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রায় এক বছর ধরে পৌরসভার কাকচর এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করে আসছেন সাদ্দাম হোসেনের স্ত্রী।ঢাকায় চাকরী করার সুবাদে কয়েকমাস পর পর স্ত্রীর সাথে দেখা করতে আসতেন সাদ্দাম হোসেন। এরই মাঝে প্রায় তিন মাস পার হলেও সাদ্দাম হোসেন তার কাছে না আসায় খোঁজ খবর নিয়ে জানতে পারেন, স্বামী সাদ্দাম হোসেন গাজীপুর ও শ্রীপুরে দুই নারীর সাথে বসবাস করছেন। তাছাড়া স্বামীর নিজের এলাকা ভৈরবে রয়েছে আরও দুই স্ত্রী।

এমতাবস্থায় গত চারদিন আগে সাদ্দাম হোসেন তার কাছে আসেন। আসার পর দুই দিন পার হলেও কিছু বলেননি তিনি। গত রবিবার (২৪ জানুয়ারী) সকালে বসতঘরে শুয়ে দরজা বন্ধ করে দেন স্ত্রী। এ সময় কেন এতগুলো বিয়ে করেছেন জানতে চাইলে সাদ্দাম হোসেন বিয়ে করার বিষয় অস্বীকার করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ব্লেড দিয়ে স্বামীর বিশেষ অঙ্গ কেটে দেন স্ত্রী। তখন লজ্জায় চিৎকার না দিলেও নিজেকে রক্ষা করতে তিনি নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নেন।

নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তব্যরত এক চিকিৎসক নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানিয়েছেন, গত রবিবার (২৪ জানুয়ারী) ওই ব্যক্তি চিকিৎসা নিতে হাসপাতালে আসেন। পরে চিকিৎসকরা বিশেষাঙ্গে সাতটি সেলাই দিয়ে ভর্তি হতে বলেন। কিন্তু, তিনি ভর্তি না হয়ে চলে যান। এর পরে কি হয়েছে বিষয়টি তাদের জানা নেই বলেও জানান কর্তব্যরত চিকিৎসক।

এ বিষয়ে নান্দাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা  (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, এ ঘটনাটি আমি শুনেছি। ওই দম্পতি বাড়িতে নেই। তবে, খোঁজ নিয়ে জানতে পেরেছি ঘটনার সত্যতা রয়েছে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন