মনপুরায় ঝুঁকি নিয়ে সাঁকো পারাপার

Monpura sako pic-2

এস আই মুকুল, নিজস্ব প্রতিবেদক : ভোলার বিচ্ছিন্ন দ্বীপ মনপুরা উপজেলার বিচ্ছিন্ন চরাঞ্চলে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন শতশত মানুষ সাঁকো পার হচ্ছেন। বিশাল সাঁকো পারাপারের সময় প্রায় ঘটছে দুর্ঘটনা। এলাকাবাসীর দীর্ঘ দিনের দাবী খালের উপর ব্রিজ নির্মাণের।

সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মনপুরার মুল ভুখন্ড থেকে বিচ্ছিন্ন কলাতলী চরে কবির বাজার সংলগ্ন খালের উপর জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন শতশত মানুষ ৪১ মিটার (১৩৪ ফুট) দীর্ঘ সাঁকো পার হচ্ছেন। বিশাল সাঁকো পারাপারের সময় প্রায় দুর্ঘটনা ঘটছে। খালের ওপারে বসবাস করে ৫ সহস্রাধিক মানুষ। তাদের একমাত্র ভরসা খালের উপর বিশাল সাঁকো। প্রতিদিন পরিবারের জন্য পণ্য সামগ্রী ও নিত্য প্রয়োজনীয় মামামাল ক্রয়ের জন্য ঝুঁকি নিয়ে সাঁকো পার হয়ে কবির বাজারে আসতে হয়। ছোট ছোট শিশুরা সাঁকো পারাপারের সময় দুর্ঘটনার শিকার হয়।

কবির বাজার সংলগ্ন বসবাসকারী মোঃ তাজল মিকার জানান, বর্ষাকালে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মহিলারা ছোট ছোট শিশুদের নিয়ে সাঁকো পার হয়। এতে পা পিছলিয়ে অনেক মহিলা ও শিশু মারাত্মক আহত হয়েছে। তিন জোড়া খালের উপর ২টি সাঁকো রয়েছে। এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবী এসব খালের উপর ব্রিজ নির্মাণের।

১নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোঃ ছালাউদ্দিন জানান, খালের উপর ব্রিজ নির্মাণের জন্য এলাকাবাসী আমাকে জানান। আমি বিষয়টি প্রশাসনের নজরে এনেছি। ব্রিজ নির্মাণের আশ্বাস দিয়েছেন।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ ইলিয়াছ মিয়া জানান, বিশাল খালের উপর এত বড় ব্রিজ আমরা করতে পারিনা। আমরা সর্বোচ্চ ৫০ ফুট খালের উপর বিজ্র করতে পারি। এত বড় খালের উপর এলজিইডি করতে পারে কিনা দেখতে পারেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ ওহিদুজ্জামান বলেন, আমরা সরেজমিনে গিয়েছি। খালের উপর ৪১ মিটার ব্রিজ নির্মাণের জন্য নির্বাহী প্রকৌশলী এলজিইডি ভোলা বরাবর প্রস্তাব প্রেরণ করেছি। এখনও কোন নির্দেশনা পায়নি।

◷ ১২:২৪ পূর্বাহ্ন ৷ রবিবার, জানুয়ারী ৩১, ২০২১ বরিশাল