🕓 সংবাদ শিরোনাম

মাইক্রোবাসে যাত্রী পরিবহন: চালক ও হেলপারকে কারাদন্ডকরোনায় ঝালকাঠির জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সানিয়ার মৃত্যুময়মনসিংহ মেডিকেলে একদিনে মৃত্যু ১২, জেলায় নতুন আক্রান্ত ৪৪০ জনকুরবানীর মাংস রান্না করার সময় ভেসে উঠলো আল্লাহর নাম!ঝাঁকে ঝাঁকে ধরা পড়ছে ইলিশ, হাঁকডাকে সরগরম মৎস্যঘাটকেউ খোঁজ রাখেনি, পল্লী বিদ্যুতের তারে বিদ্যুতায়িত পাপেলের ভরসা এখন হুইল চেয়ারবগুড়ার শেরপুরে সাংবাদিকের বাড়ি দখলের চেষ্টা, থানায় অভিযোগজরুরি অবস্থা জারি করতে রাষ্ট্রপতির কাছে আইনজীবীর আবেদননোয়াখালথতে ঘরে আগুন দিয়ে নারীসহ ৩ জনকে পিটিয়ে আহত করেছে কিশোর গ্যাংওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে দেখা করলেন কাদের মির্জা

  • আজ বুধবার, ১৩ শ্রাবণ, ১৪২৮ ৷ ২৮ জুলাই, ২০২১ ৷

রাজধানীতে মাতাল অবস্থায় ‘ধর্ষণের’ শিকার হয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর মৃত্যু

rape
❏ সোমবার, ফেব্রুয়ারী ১, ২০২১ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- সম্প্রতি রাজধানীর ধানমন্ডিতে মাস্টার মাইন্ড স্কুলের শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের ফলে মৃত্যুর ঘটনার রেষ কাটতে না কাটতেই এবার মাতাল অবস্থায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ইউল্যাবের এক ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার ছেলে বন্ধুর বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় জড়িত ওই শিক্ষার্থীর দুই বন্ধুকে গ্রেপ্তার করেছে মোহাম্মদপুর থানা পুলিশ। ভিকটিমের বাবা মোহাম্মদপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেছেন।

ধর্ষণের শিকার ওই শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়লে ধানমন্ডির আনোয়ার খান মর্ডান হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। রোববার (৩১ জানুয়ারি) সকালে সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

রবিবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে সাংবাদিকদের একথা বলেন তেজগাঁও বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার হারুন অর রশীদ।

হারুন অর রশীদ বলেন, তারা পাঁচ জন বন্ধু মিলে উত্তরায় বামবু রেস্টুরেন্টে গিয়ে মদ্যপান করেন। অতিরিক্ত মদ্যপান করার কারণে তাদের মধ্যে এক ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়েন। তখন সে বাসায় ফিরে যায়। এরপর আরাফাত (২৮), রায়হান (২১), মাদুল, ও ভিকটিম মেয়েসহ তাদের বন্ধু নুহাত আলম তাফসীরের (২১) বাসায় রাত কাটায়। সেখানে রাতে ভিকটিম মেয়েটার সঙ্গে রায়হানের শারীরিক সম্পর্ক হয়। তাদের মধ্যে পূর্ব থেকে সম্পর্ক ছিল।

এক পর্যায়ে ভিকটিম মেয়ে বমি করতে শুরু করে। তখন তাকে ইবনে সিনায় ভর্তি করানো হয়। ইবনে সিনা রোগীকে ঘণ্টা খানেক রাখার পর ধানমন্ডির আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলে। দুদিন চিকিৎসার পর রবিবার (৩১ জানুয়ারি) সকালে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মেয়েটা মারা যায়। অন্যদিকে অতিরিক্ত মদ্যপানে তাদের আরেক বন্ধু আরাফাত একই হাসপাতালে শনিবার চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

এই উপ-পুলিশ কমিশনার বলেন, এ মামলা রুজু হয়েছে আগেই। দুজন আসামি গ্রেফতার রয়েছে। আর একজন ছিল আরাফাত। সে তো মারা গেছে। আমরা বিস্তারিত তথ্য খুঁজছি। আমাদের যদি মনে হয়, আরও কেউ এর সঙ্গে জড়িত আছে। তাহলে তাকেও গ্রেফতার করা হবে। আমরা দেখার চেষ্টা করছি, মদের সঙ্গে অন্য কিছু মেশানো হয়েছে কিনা। আর যে হোটেলে বসে মদ খেয়েছে তার লাইসেন্স আছে কিনা।

মারা যাবার কারণ হিসেবে পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, যে মারা গেছে তার সবকিছু আমরা পরীক্ষা করেছি। পাশাপাশি যে দুজন আসামি গ্রেফতার আছে তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। আমাদের মনে হয়েছে অতিরিক্ত মদ্যপানে মৃত্যু হয়েছে। আর মদের মধ্যে বিষাক্ত কিছু মেশানো থাকতে পারে। দ্বিতীয়ত অতিরিক্ত মদ্যপান করিয়ে মেয়েটিকে ধর্ষণ করা হয়েছে। সব মিলিয়ে মেয়েটির মৃত্যু হয়েছে।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন