সংবাদ শিরোনাম

রাজশাহীতে বিএনপির সমাবেশে যেতে তাবিথকে ‘বাধা’গাজীপুরে সকল ট্রেনের যাত্রাবিরতির দাবিতে অবস্থান ধর্মঘটচমেকে অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ, ব্যাপক ভাঙচুর‘আত্মত্যাগের মধ্যেই হলো একজন মানুষের জীবনের স্বার্থকতা’: উপাচার্য ড. হারুন-অর-রশিদদণ্ডিত আসামি দিয়ে সুবর্ণ জয়ন্তী উদ্বোধন করে মুক্তিযুদ্ধের প্রতি অসম্মান করেছে বিএনপিবাংলাদেশ এখন চীন-ভারত-মালয়েশিয়ার কাতারে : অর্থমন্ত্রীপেট্রাপোল বন্দরে বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় ৫ হাজার ট্রাক !ইসিকে হেয় করতে যা দরকার সবই করছেন মাহবুব তালুকদার: সিইসিআশুলিয়ায় ঝুট ব্যবসাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষ, আহত-১০ভাসমান হাসপাতাল ‘জীবন তরী’এখন ঝালকাঠির সুগন্ধা নদী তীরে

  • আজ ১৭ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

রংপুর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতির পদ ফিরে পেলেন রনি

৩:০২ অপরাহ্ন | সোমবার, ফেব্রুয়ারী ১, ২০২১ রংপুর
roni 7

সাইফুল ইসলাম মুকুল, রংপুর- রংপুর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি পদে পুনরায় বহাল হলেন মেহেদী হাসান সিদ্দিকী রনি।

রোববার (৩১ জানুয়ারি) ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় এবং সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তার অব্যাহতির আদেশ প্রত্যাহার করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মেহেদী হাসান সিদ্দিকী রনির বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ আদালতে প্রমাণিত না হওয়ায় তার অব্যাহতি আদেশ প্রত্যাহার করে স্বপদে বহাল করা হলো। একইসঙ্গে আগামী দুই মাসের মধ্যে সাংগঠনিক নিয়ম অনুযায়ী রংপুর জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন আয়োজনের নির্দেশ প্রদান করা হলো। অন্যথায় কমিটি বিলুপ্ত বলে গণ্য হবে।

গত বছরের ৫ সেপ্টেম্বর রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতোয়ালি থানায় জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান সিদ্দিকী রনির বিরুদ্ধে ভুয়া বিয়ে করে একাধিকবার ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের অভিযোগে মামলা দায়ের করেন এক স্কুলশিক্ষিকা।

মামলায় রনিকে প্রধান আসামি করে ওই শিক্ষিকা অভিযোগ করেন, প্রেমের সম্পর্কের জেরে ভুয়া বিয়ের নাটক সাজিয়ে দীর্ঘদিন তাকে ধর্ষণ করা হয়। এছাড়াও ঘুরতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে কয়েকবার ভারতের বিভিন্নস্থানে নিয়ে গিয়েও তাকে ধর্ষণ করে রনি।

এ ঘটনায় ওই বছরের ১০ অক্টোবর কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে সংগঠনের নীতি, আদর্শ ও শৃঙ্খলা পরিপন্থী কার্যকলাপে যুক্ত থাকার দায়ে মেহেদী হাসান সিদ্দিকী রনিকে তার পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়। একইসঙ্গে জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সুমন সরকারকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব প্রদান করা হয়।