• আজ শনিবার, ১৬ শ্রাবণ, ১৪২৮ ৷ ৩১ জুলাই, ২০২১ ৷

মেয়রের হুমকিতে থানায় জিডি, পরিবার নিয়ে আতঙ্কে এমপি

mp
❏ সোমবার, ফেব্রুয়ারী ১, ২০২১ ময়মনসিংহ

কামরুজ্জামান মিন্টু, ময়মনসিংহ, ষ্টাফ রিপোর্টার- ময়মনসিংহ-৩ (গৌরীপুর) আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. নাজিম উদ্দিন আহমেদ ও তার ছেলে রাজিবকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার অভিযোগে উঠেছে গৌরীপুর পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে।

শনিবার এমন অভিযোগ এনে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন সংসদ সদস্য নিজেই। সেটি তদন্তের জন্য রোববার আদালতের অনুমতি চেয়ে আবেদন করে পুলিশ।

জিডির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ময়মনসিংহ কোতোয়ালি থানার উপ-পরিদর্শক ও জিডির তদন্ত কর্মকর্তা নিরুপম নাগ।

সাধারণ ডায়েরিতে সংসদ সদস্য নাজিম উদ্দিন আহমেদ উল্লেখ্য করেন, শনিবার (৩০ জানুয়ারি) বিকেল ৪টা ১৭ মিনিটে ফোন করেন পৌর মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলাম। এ সময় সংসদ সদস্য নাজিম উদ্দিন আহমেদকে উদ্দেশ্য করে মেয়র নব-নির্বাচিত মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আপনার কারণে আমার জীবন শেষ হয়ে গেছে। আমি আপনাকে ক্ষমা করবো না। রক্তের বন্যা বইয়ে দেবো।’

একইসঙ্গে এমপির ছেলে তানজির আহমেদ রাজিবকেও দেখে নেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। বিষয়টি উল্লেখ করে শনিবার রাতেই ময়মনসিংহ কোতোয়ালি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা নাজিম উদ্দিন আহমেদ।

তদন্ত কর্মকর্তা এসআই নিরুপম নাগ জানান, সাধারণ ডায়েরি তদন্ত করার জন্য রোববার (৩১ জানুয়ারি) ময়মনসিংহ অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এক নম্বর আমলি আদালতে আবেদন করা হয়েছে। আদালত তদন্তের অনুমতি দিলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এ বিষয়ে সংসদ সদস্য নাজিম উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘মুঠোফোনে হুমকি দেওয়ার পর ওই দিন রাতেই কোতোয়ালি মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছি। বর্তমানে আমি ও আমার পরিবার নিয়ে খুব আতঙ্কে আছি।’

তবে হুমকি দেওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে গৌরীপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলাম বলেন, এমপি সাহেব নির্বাচনি আচরণবিধি ভঙ্গ করেছেন। নির্বাচন অফিসে নিয়ম অনুযায়ী অভিযোগ দিলেও কোনো কাজ হয়নি। তাই, আমি তাকে ফোন করেছিলাম। কিন্তু, আমি তাকে হুমকি দেইনি।

উল্লেখ্য, গত ৩০ জানুয়ারি গৌরীপুর পৌরসভা নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ রফিকুল ইসলাম নারকেল গাছ প্রতীক নিয়ে ৭ হাজার ৮শ ৭৮ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শফিকুল ইসলাম হবি পেয়েছেন ৭ হাজার ২শ ৬৬ ভোট।

এছাড়াও উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান শুভ্র হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলামকে প্রধান আসামি করে মামলা করা হয়েছে। বর্তমানে তিনি উচ্চ আদালতের নির্দেশে জামিনে রয়েছেন।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন