🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ বুধবার, ২০ শ্রাবণ, ১৪২৮ ৷ ৪ আগস্ট, ২০২১ ৷

অবৈধ সম্পদ: আ’লীগ নেতা লিয়াকতের বিরুদ্ধে দুদকের অভিযোগপত্র

liyakot
❏ মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ২, ২০২১ সিলেট

আবুল হোসেন, সিলেট- অবৈধ সম্পদ অর্জনের দায়ে সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক লিয়াকত আলীর বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র প্রদান করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

২ কোটি ৭৩ লাখ ৯ শত ৫২ টাকার অবৈধ সম্পদ সংরক্ষণের অপরাধে তার বিরুদ্ধে দাখিলকৃত একটি মামলায় অভিযোগপত্র দেওয়া হয়।

আলোচিত-সমালোচিত আওয়ামী লীগ নেতা লিয়াতক আলীর বিরুদ্ধে অবৈধ উপায়ে পাথর সংগ্রহ করে পরিবেশ ধ্বংসের অভিযোগ রয়েছে। ২০১৯ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের রমনা থানায় তার বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদের অভিযোগ এনে মামলা করেন দুদক প্রধান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. সাইদুজ্জামান।

পরবর্তীতে মামলার তদন্তভার দেয়া হয় সিলেট জেলা সমন্বিত কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. ইসমাইল হোসেনকে। দীর্ঘ তদন্ত শেষে ২৭ জানুয়ারি ঢাকার মহানগর দায়রা জজ ও সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন ইসমাইল।

দুদক সূত্রে জানা যায়, দুদকের পক্ষ থেকে লিয়াকতের সম্পদের হিসেব চাওয়া হলে তিনি স্থাবর সম্পত্তি হিসেবে মোট ১ কোটি ৩৪ লক্ষ, ১২ হাজার ৯ শত ১৪ টাকা ও অস্থাবর সম্পত্তি হিসেবে ৮১ লক্ষ ৭৪ হাজার ৮ শত ১৩.০৮ টাকা দেখালেও তিনি সম্পদের প্রকৃত হিসেব গোপন করেন। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। পরে তদন্ত করে দেখা যায় ব্যবসা ও দান হিসেবে তিনি বৈধভাবে সম্পদ অর্জন করেছেন মাত্র ৫৯ লক্ষ ৭৮ হাজার ৮ শত ৭৮ হাজার টাকা।

কিন্তু প্রকৃতপক্ষে লিয়াকতের নামে স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তি মিলে ৩ কোটি ৩২ লাখ ৮৭ হাজার ৯ শত ৩০ টাকা পরিমাণ। সে হিসেবে লিয়াকতের অবৈধ সম্পদের পরিমাণ ২ কোটি ৭৩ লাখ ৯ শত ৫২ টাকা। এ ঘটনায় জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পাথখেকো হিসেবে পরিচিত লিয়াকত আলীর বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন-২০০৪ এর ধারা ২৭ (১) ও ২৬ (২) আওনুযায়ী অবৈধ সম্পদ ভোগদখল ও মিথ্যা তথ্য প্রদানে অপরাধ করেছেন মর্মে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দাখিল করা হয়।

প্রসঙ্গত, পরিবেশ ধ্বংস করে পাথর উত্তোলনসহ নানাভাবে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ লিয়াকতের বিরুদ্ধে দীর্ঘদিনের।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন