🕓 সংবাদ শিরোনাম

কুরবানীর মাংস রান্না করার সময় ভেসে উঠলো আল্লাহর নাম!ঝাঁকে ঝাঁকে ধরা পড়ছে ইলিশ, হাঁকডাকে সরগরম মৎস্যঘাটকেউ খোঁজ রাখেনি, পল্লী বিদ্যুতের তারে বিদ্যুতায়িত পাপেলের ভরসা এখন হুইল চেয়ারবগুড়ার শেরপুরে সাংবাদিকের বাড়ি দখলের চেষ্টা, থানায় অভিযোগজরুরি অবস্থা জারি করতে রাষ্ট্রপতির কাছে আইনজীবীর আবেদননোয়াখালথতে ঘরে আগুন দিয়ে নারীসহ ৩ জনকে পিটিয়ে আহত করেছে কিশোর গ্যাংওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে দেখা করলেন কাদের মির্জাবগুড়ায় আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যাকক্সবাজারে ফের পাহাড় ধস, ঘুমন্ত অবস্থায় একই পরিবারের ৫ জনের মৃত্যুশিশু শিক্ষার্থীরা যখন ক্রেতা-বিক্রেতা!

  • আজ বুধবার, ১৩ শ্রাবণ, ১৪২৮ ৷ ২৮ জুলাই, ২০২১ ৷

ছয় বোতল মদ নিয়ে সারাহ রিসোর্টে এশিয়াটিকের পার্টি!


❏ শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ৫, ২০২১ অপরাধ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, গাজীপুর : বিজ্ঞাপনী সংস্থা এশিয়াটিকের সহযোগী প্রতিষ্ঠান ফোরথট ও ব্ল্যাক বোর্ড পিআর এজেন্সির কর্মীরা ছয় বোতল এফসুলেট ভোটকা (বিদেশী মদ) নিয়ে গাজীপুরের সারাহ রিসোর্টে বনভোজন করেছে। যদিও সারা রিসোর্টে বাইরে থেকে মদ তো দূরের কথা কোনও খাদ্যদ্রব্য নিয়েও প্রবেশের সুযোগ নেই। এই মদ পানে অন্তত ১৬ জন অসুস্থ হয়ে তিন জন মৃত্যুর পর প্রকাশ হয় ঢাকা থেকে ২৬ হাজার টাকায় কেনা সব মদ বিষাক্ত ছিল।

ওই বিজ্ঞাপনী সংস্থার কর্মীদের মদ সরবরাহকারী এক ব্যক্তিকে বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) রাতে ঢাকার নিকুঞ্জ এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে জেলার গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।

                                                  

তার নাম মো. জাহিদ মৃধা (৪২)। সে বরিশালের আগৈলঝাড়া থানার আমবৌলা এলাকার মৃত তৈয়াব আলী মৃধার ছেলে।

গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদে জাহিদ জানিয়েছে, ঢাকার একটি বারে এশিয়া টেক্স ফার্মের এক কর্মীর সঙ্গে তার পরিচয় হয়। তখন পরিচয় না জানা ওই ব্যক্তি জাহিদকে জানায় গাজীপুরের সারা রিসোর্টে তাদের বনভোজন হবে। সেখানে বিদেশী মদ সরবরাহ করতে জাহিদকে প্রস্তাব দেয় ওই ব্যক্তি। কথা মতো মদ সংগ্রহ করতে ঢাকার শাহাজাদপুর এলাকার একজনের সঙ্গে যোগাযোগ করেন জাহিদ। পরে গত ২২ জানুয়ারি পাঠাও এর মোটরসাইকেলে করে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে গুলশানের নতুনবাজার বাঁশতলা এলাকা থেকে ছয় বোতল এফসুলেট ভোটকা ২০ হাজার টাকায় কেনেন জাহিদ। এরপর মদের বোতল শপিং ব্যাগে ভরে সন্ধ্যা সাড়ে ৫টার দিকে বনানীর ফোরথট পিআর এশিয়া টেক্স ফার্মে যান জাহিদ। ২৬ হাজার টাকার বিনিময়ে সেখানকার এক কর্মকর্তার হাতে মদের ব্যাগ পৌঁছে দিয়ে ফিরে আসেন তিনি।

জিজ্ঞাসাবাদে জাহিদ আরও জানায়, এই বিষাক্ত ভেজাল মদ সরবরাহ করে তার ৬ হাজার টাকা লাভ হয়েছে। সে মধ্যস্থতাকারী হিসেবে নিয়োমিত ভেজাল মদ সরবরাহ করতো। এশিটিকের কর্মীদের কাছে মদ সরবরাহের দুদিন পর সে আরও ছয় বোতল বিষাক্ত মদ অন্য জায়গায় সরবরাহ করেছে।

এ নিয়ে শুক্রবার (৫ ফেব্রæয়ারি) বেলা ১১টায় সংবাদ সম্মেলন করেছে গাজীপুর জেলা পুলিশ। নগরের রাজবাড়ি সড়কের পাশে অবস্থিত পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার একেএম জহিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, গত ২৮ জানুয়ারি এশিয়াটিকের সহযোগী প্রতিষ্ঠান ফোরথট ও ব্ল্যাক বোর্ড পিআর এজেন্সির ৪৩ জন কর্মী বেড়াতে যান গাজীপুরের ওই রিসোর্টে। ৩০ জানুয়ারি দুপুরে ঢাকায় ফেরার পথে তাদের মধ্যে অন্তত ১৬ জন অসুস্থ হয়ে রাজধানীর বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হন। অসুস্থদের মধ্যে একজন ওই রাতেই এবং পরদিন (৩১ জানুয়ারি) সকালে একজন ও ১ ফেব্রুয়ারি আরেকজন মারা যান। এ ঘটনায় শ্রীপুর থানা পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করেছে। মামলাটি জেলার ডিবি পুলিশ তদন্ত করছে।

এ বিষয়ে রিসোর্ট এবং মৃতদের কর্মস্থল কর্তৃপক্ষের নীরব মনোভাবের কারণে তদন্তে নামতে পুলিশের দেরি হয় বলেও জানান ভারপ্রাপ্ত এই পুলিশ সুপার।

ডিবির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিতাই চন্দ্র সরকার এক প্রশ্নের জবাবে জানান, সারা রিসোর্টের প্রধান ফটকে কঠোর নিরাপত্তা বলয় রয়েছে। সেখানে ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরার পাশাপাশি আধুনিক স্কেনার রয়েছে। মদ তো দূরের কথা সেখানে বাইরে থেকে কোনও ধরনের খাদ্যদ্রব্য নিয়েও প্রবেশ নিষেধ। মদ নিয়ে প্রবেশের চিত্র সিসি ক্যামেরায় ধরা পড়েনি। ধারনা করা হচ্ছে গাড়ির কোনও অংশে লুকিয়ে ভেতরে মদ নিয়ে ঢুকেছিল এশিয়াটিকের কর্মীরা।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে গাজীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিবি) মো. আমিনুল ইসলামসহ ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন