সাত বছরের শিশু মেয়েকে নির্মমভাবে হত্যা করেছেন তিনি

১২:০০ অপরাহ্ন | শনিবার, ফেব্রুয়ারী ৬, ২০২১ ময়মনসিংহ
atok

কামরুজ্জামান মিন্টু, ষ্টাফ রিপোর্টার- ময়মনসিংহের তারাকান্দায় শিশু সানজিদা আক্তার (৭) হত্যা মামলার মূল আসামি শাকিনুল ইসলামকে (১৯) গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১৪। সে তারাকান্দা উপজেলার রামচন্দ্রপুর গ্রামের নজরুল ইসলাম আকন্দের (টুটু পাগলা) ছেলে। নিহত সানজিদা শাহজাহান আকন্দের মেয়ে।

শুক্রবার (৫ ফেব্রুয়ারি) বিকালে ময়মনসিংহ র‌্যাব-১৪ কার্যালয় থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

এর আগে ৩ ফেব্রুয়ারি রাত সাড়ে আটটার দিকে ময়মনসিংহ রেলওয়ে ষ্টেশন থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।

ময়মনসিংহ র‌্যাব-১৪ কার্যালয়ের সহকারি পুলিশ সুপার (মিডিয়া অফিসার) মোহাম্মদ বেলায়েত হোসাইন জানান, গত ১৫ জানুয়ারি জেলার তারাকান্দা উপজেলার রামচন্দ্রপুর এলাকায় আকন্দবাড়ীর পেছনের জঙ্গল থেকে শিশু সানজিদার লাশ উদ্ধার করা হয়।

এর আগে ১২ জানুয়ারি সুপারি কুড়ানোর নাম করে অপহরণকারীরা শাহজাহান আকন্দের মেয়ে সানজিদাকে আকন্দবাড়ির পাশের জঙ্গলে নিয়ে আসে। সেদিনই সানজিদার বাবার কাছে চিরকুটের মাধ্যমে বিকাশ নম্বর উল্লেখ করে মুক্তিপণের জন্য ২০ হাজার টাকা চাওয়া হয়েছিল।

ঘটনার পরের দিন ১৩ জানুয়ারি অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে তারাকান্দা থানায় অপহরণ মামলা করেন সানজিদার বাবা। পরে মুক্তিপণের টাকা না পেয়ে শাকিনুল ও ইয়াছিন মিলে শ্বাসরোধে সানজিদাকে হত্যা করে লাশ ফেলে রাখেন। এ ঘটনায় তারাকান্দা থানায় মামলা করা হলে র‍্যাব তদন্ত শুরু করে। লাশ উদ্ধারের দুই দিন পর ইয়াসিনকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। কিন্তু অপর আসামি শাকিনুল পলাতক ছিল।

তিনি জানান, পারিপার্শ্বিকতার বিচার ও নিহতের বিভিন্ন বিষয় পর্যালোচনা ও বিশ্লেষণ করে নিবিড় তদন্ত করা হয়। বুধবার ৩ ফেব্রুয়ারি গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ময়মনসিংহ রেলওয়ে ষ্টেশনে বিশেষ অভিযান চালিয়ে রাত সাড়ে আটটার দিকে শিশু সানজিদা হত্যা মামলার মূল আসামী শাকিনুলকে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে হত্যাকান্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন। তার বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান তিনি।