পাকুন্দিয়ায় অনিয়মের অভিযোগে কৃষকদের মানববন্ধন

১০:৩৩ অপরাহ্ন | শনিবার, ফেব্রুয়ারী ৬, ২০২১ ঢাকা
Kishorgonj news

এ. এম. উবায়েদ, নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন বিএডিসি হিমাগার, পাকুন্দিয়া, কিশোরগঞ্জ এর উপপরিচালক (টিসি) মোহাম্মদ হারুন-অর-রশিদ এর বিরুদ্ধে কৃষকদের মাঝে ভেজাল বীজ বিতরণসহ প্রতারনার অভিযোগে মানববন্ধন করেছে ভোক্তভোগী কৃষকগণ।

হোসেনপুরের আড়াইবাড়িয়ার চরজামাইল এলাকায় ব্রম্মপুত্র নদের চর  জুরে আল চাষের নির্ভরযোগ্য স্থান । ২০০৫ সাল থেকে এখানকার কৃসকরা আলু চাষ করে আসতেছে। চরজামাইল ও আশপাশের কৃষকদের শত শত একর জমির প্রধান ফসল আলু। যা এলাকার চাহিদা পূরণ করেও দেশের বিভিন্ন জেলায় এর ব্যাপক কদর রয়েছে। চলতি মৌসুমে কিছু কিছু চাষিদের মাঝে নিম্ন মানের বীজ সহ,অন্য জাতের মিশ্রণ, ভিত্তি বীজের পরিবর্তে প্রত্যায়িত বীজ, এষ্টারিক্স জাতের পরিবর্তে লোকাল বীজ বিতরণ এর অভিয়োগ করেছে।এর ফলে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকেরা ক্ষতিপুরণের দাবিতে ও অভিযোক্ত পাকুন্দিয়া আলু বীজ কার্যালয়ের উপপরিচালক হারুন-অর-রশিদ এর বিরোদ্ধে মানব বন্ধন ও জেলা প্রশাসক বরাবরে ক্ষতিপুরণে অভিযোগ দাখিল করেছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় শতশত কাটা জমির আলু ফসল মরে গিয়ে মাটির সাথে মিশে গেছে। যার থেকে কোন ফসল আসা করা যায়না।

ভুক্তভোগি কৃষক ওয়াসিম ভূইয়া জানায় আমি সহ বহু কৃষক লক্ষ লক্ষ টাকা ঋন করে আলু বীজ ক্রয়, কিটনাশক, শ্রমিকের মুজুরি দিয়ে, আলু চাষ করেছি । কিন্তু ভেজাল বীজের কারণে আমাদের সমস্ত ফসল নষ্ট হওয়ায় আমরা দিশেহারা। চাষি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল আজিজ জানান, বিএডিসি কর্মকর্তা আলু বীজ বিতরণে আমাদের সাথে প্রতারনা করেছে, কৃষকরা ঋনগ্রস্থ হয়ে পরেছে যথাযথ কর্তপক্ষের মাধ্যমে এর ক্ষতিপূরণের আশা করছি।