সুনামগঞ্জে সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিককে চেয়ারম্যানের ‘হুমকি’

১২:৫২ অপরাহ্ন | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ৯, ২০২১ সিলেট
up

জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি- সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলায় সংবাদ প্রকাশের জের ধরে সমকালের প্রতিনিধি সাংবাদিক এনামুল হককে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে উপজেলার বংশীকুন্ডা দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও মধ্যনগর থানা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিম মাহমুদের বিরুদ্ধে।

গত শনিবার রাতে বংশীকুন্ডা দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আজিম তার মোবাইল ফোন থেকে সাংবাদিক এনামুল হকের মোবাইল ফোনে কল দিয়ে এই হুমকি দেন। এ ঘটনায় রোববার বিকেলে এনামুল হক নিরাপত্তা চেয়ে ধর্মপাশা থানায় জিডি করেছেন।

জানাযায়, গত শুক্রবার চেয়ারম্যান আজিম মাহমুদের বিরুদ্ধে স্থানীয় মোবারক হোসেন নামের এক রাজমিস্ত্রিকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলার অভিযোগ তুলে মানববন্ধন করেন এলাকাবাসী। এরপর শনিবার জাতীয় দৈনিক সমকালে ‘চেয়ারম্যান আজিমের ভয়ে আতঙ্কে মানুষ’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে শনিবার রাত ৮টার দিকে সাংবাদিক এনামুল হককে কল করে আজিম মাহমুদ বলেন, ‘আমি আজিম মাহমুদ বলছি, এর সত্যতা যদি প্রমাণ না হয়, তাহলে চামড়া বদলাইয়াম। এই ব্যাডা, তুই কালকে আইবে, না আমি আইতাম।

সাংবাদিক এনামুল হক বলেন, এলাকাবাসীর মানববন্ধনের পর সমকালে এ সংক্রান্ত সংবাদ প্রকাশিত হয়। এতেই ক্ষিপ্ত হয়ে চেয়ারম্যান আমাকে হুমকি দেন। একজন জনপ্রতিনিধি হয়ে সাংবাদিকের সঙ্গে যদি তিনি এমন আচরণ করেন, তাহলে সাধারণ মানুষের কী অবস্থা হবে।

এই হুমকির অভিযোগ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান আজিম মাহমুদ বলেন, আমার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ এই মানববন্ধন করিয়েছে এবং মিথ্যা বক্তব্য দিয়েছে। রাজমিস্ত্রির মারধরের ঘটনার সঙ্গে আমি যুক্ত না। সাংবাদিক এনামুল আমার ঘনিষ্ঠ মানুষ। এ কারণে সাংবাদিক এনামুলকে বলেছি, আপনি যা বলেছেন সত্য হলে প্রমাণ করে দিয়ে যান। আমি এ ঘটনায় যুক্ত ছিলাম-এ কথা কেউ বলবে না।

ধর্মপাশা থানার ওসি দেলোয়ার হোসেন বলেন, সাংবাদিক এনামুলকে উপজেলার বংশীকুন্ডা দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও মধ্যনগর থানা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিম মাহমুদ হুমকি দিয়েছেন উল্লেখ করে একটি জিডি করেছেন। আমরা বিষয়টি গুরুত্বসহকারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করছি।