সংবাদ শিরোনাম

সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্তরোহিঙ্গা শিশু অপহরণের পর হত্যার ঘটনায় নারীসহ দু’জন গ্রেপ্তারবেলকুচিতে দূর্বৃত্তদের আগুনে পুড়ে গেল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান !জামালপুরে মাদ্রাসা ছাত্রীকে রাতভর ধর্ষণ, গ্রেফতার মাদ্রাসার শিক্ষক‘করোনাকালের নারী নেতৃত্ব: গড়বে নতুন সমতার বিশ্ব’বগুড়ায় শিক্ষা প্রনোদনা পেতে প্রত্যয়নের নামে টাকা নেয়ার অভিযোগজামালপুরে ধর্ষণ মামলায় ধর্ষকের যাবজ্জীবনপাবনায় অবৈধ অস্ত্র তৈরির কারখানায় অভিযান, চারটি আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেফতার-২উপজেলা আ.লীগের সভাপতিকে ‘পেটালেন’ কাদের মির্জা!কে কত বড় নেতা, সবাইকে আমি চিনি: কাদের মির্জা

  • আজ ২৪শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কেউ কি প্রতিবাদ করার নেই: কাদের মির্জা

৪:২৪ অপরাহ্ন | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী ১১, ২০২১ আলোচিত বাংলাদেশ
kader mirza

সময়ের কন্ঠস্বর, নোয়াখালী- ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলায় নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার গাড়ি বহরে হামলার ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৬টার দিকে দাগনভূঞা বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন হাজারী ও নোয়াখালীর একরামুল করিম চৌধুরীর সন্ত্রাসীরা এ ঘটনাটি ঘটিয়েছে বলে দাবি করেছেন মির্জা কাদের। হামলার প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে তাৎক্ষণিক ফেসবুক লাইভে এসে তিনি এ কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জা বলেন, কাদের ইঙ্গিতে আজকে নিজাম হাজারী, একরাম চৌধুরী এতো দাপট দেখিয়ে চলে। তারা আমাদের ওপর হামলা করার মতো ঘটনা ঘটাচ্ছে।

তিনি বলেন, এ দেশে কি সরকার নেই, এ দেশে কি প্রশাসন নেই। আজকে আমাদের এলাকার কি কোন অভিভাবক নেই। কেউ কি প্রতিবাদ করার নেই। আমরা যাকে মন্ত্রী বানিয়েছি। এই এলাকার জনগণ। সেই মন্ত্রীর কাজ কি। সেই মন্ত্রী অপশক্তির কাছে আজকে মাথা নত করেছে।

এ সময় তিনি জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আহ্বান জানান, এই ঘটনাগুলোর সাথে যারাই জড়িত তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেন। না হলে আপনার সকল অর্জন এরা ধ্বংস করবে। এদেরকে কারা আজকে শেল্টার দিচ্ছে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিন। তাদের কে চিহ্নিত করেন। সে যত বড় নেতা হোক, যত বড় মন্ত্রী হোক তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেন।

কাদের মির্জা বলেন, যারা ফেনীতে একরামকে হত্যা করেছে ঠিক একই কায়দায় আমাকে হত্যা করার জন্য একরাম চৌধুরীর সন্ত্রাসীরা, নিজাম হাজারীর সন্ত্রাসীরা আমার গাড়ির গতিরোধ করে। কিন্তু আল্লাহর অশেষ মেহেরবানি একটি ট্রাক থাকার কারণে আমার গাড়িটি দ্রুত চলে আসছে, আমার গাড়িতে কিছু করতে পারে নাই। আমার পরবর্তীতে ১০-১২টি গাড়ি ছিলো সেগুলোর ওপর ইট-পাটকেল, ডিম মারা হয়েছে। সেলিম নামে আমাদের একজন নেতা আহত হয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, আমি শপথ নিয়ে এলাকায় ফিরে গিয়ে একমাস আর মানবো না অনতিবিলম্বে এদেরকে দল থেকে বহিষ্কারের দাবিতে, নোয়াখালীর অপরাজনীতি বন্ধের দাবিতে, নোয়াখালী-ফেনীর ভোট চুরির বিরুদ্ধে, এখানে যে অনিয়ম-দুর্নীতি হচ্ছে, এর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবো।

এর আগে শপথ নেয়ার জন্য চট্টগ্রাম যাওয়ার পথে বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৬টায় দাগনভুঞা জিরো পয়েন্টে দুর্বৃত্তরা তার গাড়িবহরে হামলা করে বলে অভিযোগ করেন বসুরহাট পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।