স্কুলছাত্রীকে তুলে নিয়ে ‘ধর্ষণ’ করে ভিডিও ধারণ

৯:৫৬ অপরাহ্ন | শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ১২, ২০২১ দেশের খবর

সময়ের কন্ঠস্বর ডেস্ক: মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার গুয়াগাছিয়া ইউনিয়নে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ ও ভিডিওচিত্র ধারণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় গজারিয়া থানায় দুজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

মামলার আসামিরা হলেন, স্থানীয় লিটন মিয়ার ছেলে আকাশ (১৮) ও পারভেজ হোসেনের ছেলে সালাউদ্দিন।

আজ শুক্রবার তাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন স্কুলছাত্রীর মা।

নির্যাতিত ওই স্কুলছাত্রী জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নিজের বাড়ির ঘরের সামনে দাঁড়িয়ে ফোনে কথা বলছিলেন তিনি। এ সময় স্থানীয় লিটন মিয়ার ছেলে আকাশ ও পারভেজ হোসেনের ছেলে সালাউদ্দিন তার মুখ চেপে ধরে প্রতিবেশী সিদ্দিকুর রহমানের পরিত্যক্ত বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণ ও ভিডিওচিত্র ধারণ করেন। প্রতিবেশী আরেক বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠান উপলক্ষে সাউন্ড বক্সের উচ্চশব্দের কারণে তার চিৎকারের শব্দ শুনতে পায়নি কেউ। ধর্ষণের পর তাকে ফেলে পালিয়ে যান অভিযুক্তরা।

ভুক্তভোগীর পরিবারের অভিযোগ, গুরুতর আহত অবস্থায় ওই ছাত্রীকে হাসপাতালে নেওয়ার পথে বাধা দেন আকাশ ও সালাউদ্দিনসহ তাদের স্বজনরা। তারা ভুক্তভোগীর পরিবারের লোকজনের ওপর হামলা চালান। হামলায় আহত হন নির্যাতিতার মা, বড় বোন ও দুলাভাই। পরে ৯৯৯-এ ফোন দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাদের উদ্ধার করে।

গজারিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মাঈন উদ্দিন জানান, ৯৯৯-এ ফোন পেয়ে তারা তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পৌঁছে ভুক্তভোগীদের উদ্ধার করেন।

এ বিষয়ে গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রইছ উদ্দিন জানান, ধর্ষণের অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। ঘটনা তদন্তের জন্য আসামি সালাউদ্দিনের বাবা-মাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।