পঞ্চগড় সীমান্ত থেকে পুলিশ সদস্যকে ধরে নিয়ে গেছে বিএসএফ

৩:৪৮ অপরাহ্ন | সোমবার, ফেব্রুয়ারী ১৫, ২০২১ রংপুর
panchagarh

নাজমুস সাকিব মুন, পঞ্চগড় প্রতিনিধিঃ পঞ্চগড়ে মোমিনপাড়া সীমান্ত থেকে ওমর ফারুক নামে এক পুলিশ সদস্যকে ধরে নিয়ে গেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) সদস্যরা।

গতকাল রোববার রাতে জেলার সদর উপজেলাধীন হাড়িভাসা ইউনিয়নের ঘাগড়া সীমান্ত এলাকা থেকে তাকে ধরে নিয়ে যায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রোববার রাতে ওই ইউনিয়নের মোমিনপাড়া সীমান্তে মেইন পিলার ৭৫৩ এর  ৭ ও  সাব পিলার এলাকা দিয়ে ভারতীয় এলাকায় প্রবেশ করে ওমর ফারুক সহ ৩ জন পুলিশ সদস্য। পরে ওই এলাকায় ভারতীয় নাগরিকদের সাথে তাদের তর্ক হয়। পরে ধস্তাধস্তি শুরু হলে ওমর ফারুক নামে এক পুলিশ সদস্যকে ভারতীয়রা মারধর করে আটকে রাখে এবং পরে তারা বিএসএফের হাতে তাকে তুলে দেয়। এসময় মোশাররফ হোসেনসহ দুই পুলিশ সদস্য বাংলাদেশে চলে আসেন।

স্থানীয়দের অভিযোগ, গতকাল আমরা ওমর ফারুক নামের ওই পুলিশ সদস্যকে এই এলাকায় প্রথম দেখেছি। মোশারফ নামের আরেক পুলিশ সদস্য প্রায়ই এ সীমান্তে আসেন। তিনি তাকে এই এলাকায় নিয়ে এসেছেন।

এদিকে পঞ্চগড় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু আক্কাছ আহমদ ওমর ফারুক নামে ওই পুলিশ সদস্য  বিএসএফের কাছে আটক থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করলেও তিনি ঘটনার বিস্তারিত জানাননি।

তবে  জানা গেছে,ওমর ফারুকের মোটর সাইকেলটি সীমান্ত এলাকা থেকে পুলিশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

এ বিষয়ে নীলফামারী ৫৬ বিজিবি অধিনায়কের সাথে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তাদের পাওয়া যায়নি।

তবে ঘাগড়া সীমান্ত ফাঁড়ির কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার রুহুল আমিন জানান, আমরা এ ব্যাপারে স্থানীয়দের কাছে শুনেছি। তবে তিনি কেন ভারতীয় সীমান্ত গেছেন আমরা জানি না। আমরা বিএসএফের সাথে কথা বলেছি তারা আমাদের আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তারা জানিয়েছেন  তিনি এখন জলপাইগুড়ির একটি  হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। তবে বিজিবির পক্ষ থেকে বিএসএফের সাথে পতাকা বেঠকের জন্য চিঠি প্রেরণের প্রক্রিয়া চলছে।