কোম্পানীগঞ্জে হরতাল চলছে, কাদের মির্জার সমর্থকদের পিকেটিং

store

সময়ের কণ্ঠস্বর, নোয়াখালী- আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের নির্বাচনী এলাকা নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে সকাল ৬টা থেকে হরতাল চলছে তার ভাই আবদুল কাদের মির্জার ডাকে

নোয়াখালীর ডিসি, পুলিশ সুপার, কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসিকে প্রত্যাহার ও আওয়ামী লীগের স্থানীয় কয়েকজন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তারের দাবিতে ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত এই হরতাল ডেকেছেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, হরতালের সমর্থনে সকাল থেকে চলছে মিছিল ও সমাবেশ। হরতালের কারণে দোকান, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। কোম্পানীগঞ্জ থেকে চলছে না দূরপাল্লা ও অভ্যন্তরীণ কোনো যানবাহন।

কাদের মির্জার ডাকে এ হরতালে পিকেটিং করছে তাঁর সমর্থকরা। হরতালকারীরা রাস্তায় গাছের গুড়ি ফেলে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করে। যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকায় সাধারণ যাত্রীদের দুর্ভোগের মধ্যে পড়তে হচ্ছে। তবে হাসপাতাল ও সংবাদপত্রবাহী গাড়ি, ব্যাংকসহ জরুরি সেবামূলক প্রতিষ্ঠান হরতালের আওতার বাইরে রয়েছে।

অপরদিকে শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থান ও মোড়সমূহে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

কোম্পানিগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহিদুল রনি জানান, কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

এর আগে এসব দাবিতে গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে আটটায় কোম্পানীগঞ্জ থানার ফটকে অবস্থান কর্মসূচি পালন শুরু করেন কাদের মির্জা। রাতভর তিনি দলীয় নেতা-কর্মীদের নিয়ে সেখানে অবস্থান করেন। রাতে একপর্যায়ে তিনি বুধবার সকাল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য কোম্পানীগঞ্জে হরতালের ডাক দেন। পরে গতকাল বুধবার সকাল পৌনে ১০টার দিকে তিনি অবস্থান কর্মসূচি ও লাগাতার হরতাল সাময়িকভাবে প্রত্যাহার করেন।

তখন কাদের মির্জা বলেন, সাধারণ মানুষের ভোগান্তির কথা চিন্তা করে আমি আজকের মতো কর্মসূচি প্রত্যাহার করছি। তবে আমার দাবি যদি মানা না হয়, তাহলে আগামীকাল সকাল থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত আবার হরতাল পালন করা হবে। এরপরও যদি দাবি মানা না হয় তাহলে পরদিন সকাল সন্ধ্যা হরতাল পালনসহ আবারও থানার সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হবে।

◷ ১১:০৫ পূর্বাহ্ন ৷ বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী ১৮, ২০২১ আলোচিত বাংলাদেশ