জবি বিএনসিসির অঙ্গীকার, শহীদ মিনার থাকবে পরিস্কার

৩:৫৭ অপরাহ্ন | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী ১৮, ২০২১ শিক্ষাঙ্গন
bncc

জবি প্রতিনিধি: ভাষার মাস ফেব্রুয়ারিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার পরিস্কার রাখার অঙ্গীকার করেছে বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্যাডেট কোর (বিএনসিসি), জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কন্টিনজেন্ট।

এ উপলক্ষে আজ বৃহস্পতিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. শামীমা বেগম এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল বিএনসিসি পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন কর্মসূচির উদ্বোধন করেন।

এ সময় অধ্যাপক ড. শামীমা বেগম বলেন বিএনসিসির এ উদ্যোগ সত্যি প্রশংসনীয়। শহীদ মিনার প্রত্যেক মাসে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের উচিত শহীদ মিনার পরিস্কার করা। তিনি আরও বলেন, শহীদ মিনারের চারপাশে চারটি সচেতনতামূলক সাইনবাের্ড লাগিয়ে দেওয়া যাতে কেউ জুতা পায়ে শহীদ মিনারে না উঠে।

এসময় সংগঠনটির একদল ক্যাডেট ঝাড়ু ও ব্রাশ হাতে নিয়ে সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের মূল বেদিসহ চারপাশের দেয়ালে থাকা বিভিন্ন পােস্টার ও জমে থাকা শ্যাওলা পরিস্কার করেন তারা। এ ছাড়া শহীদ মিনারে জুতা পায়ে না ওঠার জন্য অনুরােধ করে নির্দেশনামূলক সাইনবাের্ডও লাগিয়ে দেয় সংগঠনটি ।

সরেজমিনে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে অবস্থিত কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারটি দীর্ঘদিন ধরে অপরিচ্ছন্ন অবস্থায় ছিল। গত বছর শহীদ দিবস পালনের পর শহীদ মিনারে আর কোন পরিস্কার পরিচ্ছন্ন অভিযান চালানো হয় নি। আজ বৃহস্পতিবার বিএনসিসি একদল ক্যাডেটকে দেখা যায় শহীদ মিনারটিকে পরিস্কার করতে।

শহীদ মিনার পরিস্কার সম্পর্কে ২ বিএনসিসি ব্যাটালিয়ন আলফা কোম্পানির কোম্পানি কমান্ডার পিইউও আতিয়ার রহমানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আসছে মহান শহীদ দিবস, ভাষা শহীদেরা তাদের জীবন বিলিয়ে দিয়ে আমাদের এ মাতৃভাষা উপহার দিয়ে গেছেন। ভাষা শহীদদের প্রতি সম্মান রেখেই আমাদের বিএনসিসির এ আয়োজন।

উল্লেখ্য, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় বিএনসিসি ক্যাডেটরা প্রতিবছর ফেব্রুয়ারি মাসের ১ তারিখে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে থাকে। কিন্তু এ বছর করোনার কারণে শহীদ দিবসের পূর্বে করা হলো বলে জানান তারা।