সংবাদ শিরোনাম

পঞ্চম দফায় স্বেচ্ছায় ভাসানচর যাচ্ছেন আরও ৩ হাজার রোহিঙ্গাআল-জাজিরার বিরুদ্ধে ৫০০ মিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণের মামলারাজশাহীতে বিএনপির সমাবেশ আজ, সব রুটের বাস বন্ধনিষেধাজ্ঞা পৌঁছানোর ৫২ মিনিট আগে বেনাপোল দিয়ে ভারতে পালান পি কে হালদার৮ম শ্রেণি পাস করে ‘ডাক্তার’, চেম্বার খুলে দেখছেন রোগী!বাংলাদেশের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পুনর্বিবেচনার আহ্বান জাতিসংঘেরফুলবাড়ীতে টিভি দেখার প্রলোভনে প্রতিবন্ধী শিশুকে বলাৎকারআল-জাজিরা একটা নাটক লিখেছে, যা বেমানান: পররাষ্ট্রমন্ত্রীসিএমপিতে ৮ পুলিশ কর্মকর্তার দফতর বদলক্রাইস্টচার্চে আবারও ‘গোলাগুলির শব্দ’, শিউরে উঠলেন তামিম!

  • আজ ১৭ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মাদারীপুরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সংঘর্ষে একজন নিহত, আহত ৫

৬:১৩ অপরাহ্ন | শনিবার, ফেব্রুয়ারী ২০, ২০২১ ঢাকা
songorso

মেহেদী হাসান সোহাগ, স্টাফ রিপোর্টার, মাদারীপুর- মাদারীপুরে পূর্বশত্রুতার জের ও আদিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুইপক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো দুইজন।

শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সদর উপজেলার পশ্চিম ছিলারচরে দুপক্ষের সংর্ঘষের ঘটনা ঘটে। নিহত সায়েদ ভুইয়া (৪০) একই এলাকার সোবাহান ভুইয়ার ছেলে। সে পেশায় এলাকায় দাতেঁর ডাক্তার ছিল।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, আধিপত্য ও পূর্বশুত্রুতার জের নিয়ে ওই এলাকার ফেরদৌস তালুকদার ও রহমান মৃধার সাথে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জেরে উভয়পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে আহত হয় অন্তত ৬ জন। তাদের মধ্যে সায়েদ ভুইয়াকে উদ্ধার করে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ এ্যান্ড হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যান সায়েদ।

এছাড়া বাকি আহতদের মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হলেন, হারুন কাজী (৬৫), চুন্নু মৃর্ধা (৩২), আলমগীর কাজী (৩২), বুলবুল (৩৫)। এ ঘটনায় বেশ কয়েকটি ঘরবাড়ি-ভাংচুর করা হয়েছে। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবেলায় মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ।

নিহতের চাচাতো ভাই জুলহাস জানান, আমার ভাই সায়েদ কে কুপিয়ে মারছে তারপর আমার দুটি ছোট সন্তান তাকেও মারছে এরা মানুষ না পশু।

ফেরদৌস তালুকদার জানান, আমার ভাইকে কুপিয়ে মাইরা ফেলছে। ওরা এর আগেও আমাদের একাধিকবার হামলা চালিয়ে হত্যা করার চেস্টা করেছে। এ ব্যাপারে রহমান মৃর্ধার পক্ষের বিরুদ্ধে ৯টি মামলা রয়েছে।

রহমান মৃর্ধার পক্ষের লোকজন পলাতক থাকায় কারো সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

মাদারীপুর সদরের আঙ্গুলকাটা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক (আইসি) মো. নাসিরউদ্দিন জানান, এই এলাকায় প্রায় দুইপক্ষের সংঘর্ষ হয়। এর আগেও এদের দুই পক্ষের নামে একাধিক মামলা রয়েছে। তবে নিহত হওয়ার পরে যেন কেউ আবারও কোন ভাবে ভাংচুর বা লুটপাট করতে না পারে তার জন্য আমরা অতিরিক্ত পুলিশ রাখা হয়েছে।

মাদারীপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(প্রশাসন ও অপরাদ) মো. আব্দুল হান্নান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, আমরা এখন পযন্ত যা জানতে পেরেছি পূর্বশুত্রুতার জেরেই এই সংর্ঘষের ঘটনা ঘটেছে এবং সেখানে একজন গুরুত্বর আহত অবস্থায় ঢাকা নেয়ার পথে একজনের মৃত্যু হয়েছে। বর্তমানে এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। এখনো মামলা কেউ করেনি তবে মামলা হলে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।