• আজ ২৯শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কারাগারে মুশতাকের মৃত্যুর প্রতিবাদে শাহবাগ অবরোধ

৩:৩৫ অপরাহ্ন | শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ২৬, ২০২১ স্পট লাইট

সময়ের কন্ঠস্বর ডেস্ক: লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা।

শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সকাল এগারোটার দিকে ঢাকা বিশ্বদ্যিালয় থেকে মুশতাক হত্যার বিচারের দাবিতে মিছিল নিয়ে রাজধানীর শাহবাগে যান প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা। এ সময় তারা মৃত্যুর প্রতিবাদে শাহবাগ অবরোধ করলে যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটে।

তাদের বিক্ষোভ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের সভাপতি আল কাদেরী জয়, ছাত্র ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দীন প্রিন্স, পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক অমল ত্রিপুরা প্রমুখ, ছাত্র ইউনিয়নের রাগীব নাইম প্রমুখ।

এসময় লেখক মুশতাক আহমেদকে ‘হত্যা’ করা হয়েছে বলে দাবি করে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের সভাপতি আল কাদেরী জয় বলেন, ‘লেখক মুশতাক আহমেদ সাধারণভাবে মৃত্যুবরণ করেননি। এই সরকারের কারণে তিনি তিলে তিলে মারা গেছেন। আমরা অবিলম্বে মুশতাক আহমেদের খুনের বিচার চাই।’

আল কাদেরী জয় আরো বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের নামে বাংলাদেশের মানুষের কণ্ঠরোধ করা হয়েছে। প্রতিবাদের ভাষাকে পঙ্গু করে দেয়া হয়েছে। এই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বন্ধ করতে হবে।

তিনি বলেন, পুরো দেশটাকে পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত করা হয়েছে। এ পুলিশি রাষ্ট্রের বলি লেখক মুশতাক আহমেদ। আমরা প্রতিবাদ না করলে এই ঘটনা বন্ধ হবে না। আরো ঘটতে থাকবে। এসময় তিনি সবাইকে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

ছাত্র ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দীন প্রিন্স বলেন, ছাত্ররা যখন পরীক্ষার জন্য রাস্তায় দাঁড়াচ্ছে তখন তাদেরকে গ্রেফতার করা হচ্ছে। আমরা সরকারী এই নিপীড়নের প্রতিবাদ জানাই।

ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক মাহির শাহরিয়ার রেজা বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার আসার পর থেকে ক্রস ফায়ার, গুম, খুনের সংখ্যা বেড়েছে বহুগুণ। বেড়েছে বিচার বহির্ভূত হত্যা। মানুষের কথা বলার অধিকার নেই, জীবনের নিরাপত্তা নেই। আওয়ামী লীগ তাদের রাজত্ব কায়েম করে রাখার জন্য ভিন্নমতের দমনের জন্য যা যা করার দরকার সব করছে।

ছাত্র ইউনিয়নের রাগীব নাইম বলেন, ‘যে রাষ্ট্র কাঠামো আমাকে কথা বলতে দেয় না নিরাপদে থাকতে দেয় না, সে রাষ্ট্র আমি চাই না। আপনারা সমাবেশ এসে আওয়াজ তুলোন এই রাষ্ট্র কাঠামো ভেঙে দিতে হবে।’

বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে আটটার দিকে মুশতাক আহমেদ কাশিমপুর কারাগারে মারা যান। তিনি র‌্যাবের করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় আটক ছিলেন।