• আজ শুক্রবার। গ্রীষ্মকাল, ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ২৩শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। রাত ১২:১৫মিঃ

সুবিধাবাদীরা রাজনীতিকে পেশা বানিয়ে ফেলেছেন : রাষ্ট্রপতি

⏱ | বুধবার, মার্চ ১৭, ২০২১ 📁 ফিচার
abdul-hamid-

সময়ের কন্ঠস্বর ডেস্ক- কিছু সুবিধাবাদী লোক রাজনীতিকে পেশা বানিয়ে ফেলেছেন বলে মন্তব্য করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। তিনি বলেছেন, ‘আজ আমরা স্বাধীনতার ৫০ বছর পার করছি। এসময়ে রাজনীতিতে অনেক চড়াই-উৎরাই ঘটেছে। কিন্তু রাজনীতিতে গুণগত পরিবর্তন কতটুকু হয়েছে তা ভেবে দেখতে হবে।’

রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘ব্যক্তির চেয়ে দল, দলের চেয়ে দেশ বড়। এটাই রাজনীতির মূলমন্ত্র। এ মন্ত্রে উজ্জীবিত হয়ে রাজনীতিবিদদের চলার কথা। কিন্তু কিছু সুবিধাবাদী লোক রাজনীতিকে পেশা বানিয়ে ফেলেছেন।’

বুধবার (১৭ মার্চ) জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে ১০ দিনব্যাপি অনুষ্ঠানমালার প্রথম দিনের আয়োজন ‘ভেঙেছ দুয়ার, এসেছ জোতির্ময়’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় রাষ্ট্রপতি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, রাজনীতি আর পেশা এক জিনিস নয়। পেশার মাধ্যমে একজন ব্যক্তি নিজের ও পরিবার-পরিজনের জীবন-জীবিকা নির্বাহ করেন। আর রাজনীতি হচ্ছে দেশ ও জনগণের কল্যাণে কাজ করার একটি মহান ক্ষেত্র। তাই রাজনীতিকে পেশা মনে করলে দেশ ও জনগণের কথা ভুলে নিজের ও পরিবারের গণ্ডির মধ্যেই ঘুরপাক খেতে হবে।’

বঙ্গবন্ধুর ১০১তম জন্মদিনে রাজনীতিবিদদের আহ্বান জানিয়ে রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘আসুন, বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শ ও কর্ম থেকে শিক্ষা নিয়ে নিজেদের দেশ ও জনগণের সেবায় নিয়োজিত করি।’

এই আয়োজনে চীনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং, কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো এবং জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইউশিহিদে সুগা ভিডিওবার্তা পাঠানোয় তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান রাষ্ট্রপতি।

তিনি বলেন, ‘আমি আশা করি, এখন থেকে এসব উন্নয়ন সহযোগী বন্ধু দেশগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশের যোগাযোগ ও সম্পর্ক আরও ঘনিষ্ঠ ও সুদৃঢ় হবে। আমি চীন, জাপান ও কানাডার সরকার ও জনগণের অব্যাহত শান্তি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি কামনা করি।’

জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর ঐতিহাসিক এই উদযাপনে যোগ দিতে সময় নিয়ে বাংলাদেশে আসায় মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতির প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘আমি মালদ্বীপের মাননীয় রাষ্ট্রপতির মূল্যবান বক্তব্যের জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। এর মধ্য দিয়ে দুই দেশের ঘনিষ্ঠ ও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক প্রতীয়মান হয়। আমি আশা করি, আমাদের সঙ্গের এই সময়টুকু আপনার জন্য আনন্দদায়ক এবং উপভোগ্য হবে। আমি মালদ্বীপের জনগণের অব্যাহত শান্তি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি কামনা করছি।’

রাষ্ট্রপতির বক্তব্যে উঠে আসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম, বেড়ে ওঠা, রাজনৈতিক দূরদর্শিতা, আত্মত্যাগ, জাতির কর্ণধার হয়ে ওঠার নানা প্রসঙ্গ।

আবদুল হামিদ বলেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনের মাধ্যমে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে স্বাধীনতার জন্য বঙ্গবন্ধুর অপরিসীম ত্যাগ ও অসীম সাহসিকতার কথা সুবিদিত হয়ে থাকবে।