• আজ ২৮শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ঝালকাঠিতে প্রার্থীর মনোনয়নপত্র ছিনতাইয়ের অভিযোগ

১০:১৪ অপরাহ্ন | বৃহস্পতিবার, মার্চ ১৮, ২০২১ বরিশাল
jhalokhathi

নজরুল ইসলাম,  ঝালকাঠি প্রতিনিধি: ঝালকাঠি সদর উপজেলার কীর্ত্তিপাশা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে একজন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়নপত্র ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে ।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে এগারটার দিকে সদর উপজেলা পরিষদের সামনে এ ঘটনা ঘটে । এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুর রহিম মিয়া ঝালকাঠি থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন এবং দুপুরে ঝালকাঠি প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ।

লিখিত অভিযোগ ও সংবাদ সম্মেলনের বক্তব্যে জানা যায়, কীর্ত্তিপাশা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আব্দুর রহিম মিয়া ২০১১ সন থেকে ২০১৬ সন পর্যন্ত ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন । ২০১৬ সালের নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন আব্দুস শুক্কুর মোল্লা । এ বছরের নির্বাচনেও দলীয় মনোনয়ন পান আব্দুস শুক্কুর মোল্লা । আব্দুর রহিম মিয়া স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন । বৃস্পতিবার সকাল সাড়ে এগারটার দিকে রহিম মিয়া কর্মী সমর্থক নিয়ে উপজেলা পরিষদে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমা দিতে গেলে পরিষদের সামনে অপর চেয়ারম্যান প্রার্থী শুক্কুর মোল্লার ছেলে রাহাত মোল্লা ও র‌্যাভেন মোল্লা অজ্ঞাতনামা ৮/১০ জন সন্ত্রাসী নিয়ে রহিম মিয়াকে লাঞ্ছিত করে জীবননাশের হুমকি দিয়ে মনোনয়নপত্র ছিনিয়ে নেয় ।

এ সময় রহিম মিয়ার কয়েকজন সমর্থক বাধা দিলে তাদেরকেও মারধর করা হয় । কিছুক্ষন পরে কীর্ত্তিপাশার গন্যমান্য ব্যাক্তি আব্দুর রহমান, মো: মকিম মিয়া, হাফিজুর রহমানদের চাপে কিছু কাগজপত্র রেখে মনোনয়নপত্র ফেরত দেয়া হয় ।

রহিম মিয়া অভিযোগ করেন,বর্তমান চেয়ারম্যান শুক্কুর মোল্লার ছেলেরা আমাকে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর জন্য হুমকি দিচ্ছেন । আমি যদি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করি তাহলে তারা আমাকে হত্যা করতে পারে । তাই আমি সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচনের জন্য প্রশাসন এবং সাংবাদিকদের সহযোগিতা কামনা করছি ।

ঝালকাঠি থানার ডিউটি অফিসার আশ্রাফুল ইসলাম বলেন, আব্দুর রহিম মিয়ার লিখিত অভিযোগ পেয়েছি । ওসি স্যারের সাথে আলোচনা করে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে ।

বর্তমান চেয়ারম্যান এবং প্রতিদ্বন্দ্বিত প্রার্থী আব্দুস শুক্কুর মোল্লা বলেন, মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার সময় আমার বড় ছেলে রাহাতের সাথে রহিম মিয়ার কথাকাটাকাটি হয়েছে । আমার ছোট ভাই মাহফুজুর রহমান পুলিশ পরিদর্শক আব্দুল হালিম তালুকদারের সামনে সমস্যার সমাধান করে দিয়েছেন । মনোনয়নপত্র ছিনতাইয়ের কোনো ঘটনা ঘটেনি । জীবননাশের হুমকির অভিযোগ সত্য নয় ।