• আজ ২৯শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

টাঙ্গাইলে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের মহোৎসব

১১:০২ অপরাহ্ন | রবিবার, মার্চ ২১, ২০২১ ঢাকা
Tangail balu pic (1)

মোল্লা তোফাজ্জল, জেলা প্রতিনিধি টাঙ্গাইল: টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার ভুক্তা গ্রামে নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে প্রভাবশালী একটি মহল। দুটি ভেকু লাগিয়ে তারা দিনের পর দিন অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় ঈদ গা মাঠ, বসতবাড়ি ও সেতু হুমকির মুখে রয়েছে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, প্রশাসনকে ম্যানেজ করেই বালু খেকো রাত দিন বালু বিক্রি করছে। ঘাটে অবৈধ ট্রাক চলাচল করায় ধূলাবালুতে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে এলাকাবাসীকে। সেতু ও ঈদ গা মাঠ রক্ষায় অবৈধ বালুর ঘাট বন্ধের দাবি জানিয়েছে স্থানীয়রা।

স্থানীয়রা জানায়, সদর উপজেলার ঘারিন্দা ইউনিয়নের আউলটিয়া গ্রামের সেলিম, ঘারিন্দা গ্রামের মোস্তফা ও কালিহাতী উপজেলার ভুক্তা গ্রামের তোফাজ্জল হোসেনের যৌথ নেতৃত্বে নদী থেকে দুটি ভেকু লাগিয়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এতে করে সদর উপজেলার সুরুজ সেতু, ঈদ গা মাঠ, কয়েকটি বসতবাড়ি হুমকির মুখে পড়েছে। স্থানীয়দের অভিযোগ, কালিহাতীর সংসদ সদস্য হাসান ইমাম খান সোহেল হাজারী ছত্র ছায়ায় তারা দিনের পর দিন অবৈধভাবে এ বালু ঘাট চালিয়ে যাচ্ছেন।

উজ্জল বেপারী নামের এক পথচারী বলেন, ধূলা বালুর কারণে রাস্তা দিয়ে চলাচল করা যায় না। বাড়ি ঘরে থাকাও কষ্ট হয়েছে। শুধু আমাদের কষ্ট নয়, সুরুজ ব্রীজ ও ঈদগা মাঠ এবং বসতবাড়ি হুমকির মুখে রয়েছে। অবৈধ ঘাটটি বন্ধ করা হলে অনেক ভাল হয়।

অবৈধ বালুর ঘাটে কাজ করা এক শ্রমিক বলেন, কালিহাতীর এমপি সোহেল হাজারী নেতৃত্বেই ঘাটটি চলছে। আমি প্রতিদিন বেতন পাই তাই কাজ করি। তবে ঈদগা মাঠ ও বাড়ি ঘর ঝুঁকিতে রয়েছে।

ঘাটের দায়িত্বে থাকা তোফাজ্জল হোসেন বলেন, সব কিছু ম্যানেজ করেই ঘাট চালানো হচ্ছে। শুধু মাটির ব্যবসা নয়, নদী খননের কাজও হচ্ছে। নদী খনন করায় পাশ্ববর্তী ঈদগা মাঠ, সেতু ও বসতবাড়ী ভাঙ্গনের হাত থেকে রক্ষা পাবে।

কালিহাতী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুমানা তানজীন অন্তরা বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। আপনার মাধ্যমে বিষয়টি অবগত হলাম। দ্রুত সময়ের মধ্যে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক ড. মো. আতাউল গনি বলেন, অবৈধ বালু ঘাটের উপর ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে দ- দেওয়া হচ্ছে। ভুক্তা ঘাটের বিষয়েও কালিহাতী উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে নির্দেশনা দেওয়া আছে। আশা করি সে অভিযান পরিচালনা করে বন্ধ করে দিবে।

এ বিষয়ে টাঙ্গাইল-৪ আসনের সংসদ সদস্য হাসান ইমাম খান সোহেল হাজারী সাথে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।