সংবাদ শিরোনাম

‘লঘু পাপে গুরু দণ্ড’; তিনটি মুরগি চুরির দায়ে দেড়লাখ টাকার জরিমানা চার তরুণের!কুড়িগ্রামের সবগুলো নদ-নদী শুকিয়ে গেছে, হুমকীতে জীব-বৈচিত্রহেফাজতের আরেক কেন্দ্রীয় নেতা গ্রেপ্তারমধুখালীতে বান্ধবীর সহায়তায় অচেতন করে দফায় দফায় ধর্ষণের শিকার নারী!বাসস্ট্যান্ডে প্রকাশ্যে চায়ের স্টলে ইতালি প্রবাসীকে কুপিয়ে হত্যাগোবিন্দগঞ্জে মর্মান্তিক সড়ক দূঘর্টনায় স্কুল শিক্ষকসহ একই পরিবারের ৪ জন নিহতময়মনসিংহে ব্রহ্মপুত্র নদের পানিতে ডুবে মারা গেলো ৩ শিশুমুহুর্তেই ভয়াবহ আগুন! স্কুলেই পুড়ে মরলো ২০ শিশু শিক্ষার্থী!সাবেক আইনমন্ত্রী আব্দুল মতিন খসরু আর নেইসব রেকর্ড ভেঙে চুরমার, একদিনেই ৯৬ জনের মৃত্যু

  • আজ ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

নিজের পিস্তলের গুলিতে এসআই হাসানের আত্মহত্যার নেপথ্যে যে ঘটনা

১১:৫০ অপরাহ্ন | রবিবার, মার্চ ২১, ২০২১ রাজশাহী
আত্মহত্যার নেপথ্যে

আব্দুল লতফি রঞ্জু, পাবনা প্রতিনিধি: পাবনার আতাইকুলা থানার এসআই হাসান আলী (২৮) পিস্তলের গুলিতে আত্মহত্যা করেছেন। এ ঘটনায় পুরো এলাকাজুড়েই চলছে নানা গুঞ্জন। আত্মহত্যার নেপথ্যে প্রেম ঘটিত কোন ব্যাপার নাকি পারিবারিক অথবা অন্যকোন ব্যক্তিগত হতাশা তা জানা যায়নি স্পষ্ট করে।

এর আগে শনিবার (২০ মার্চ)  রাত ২টার দিকে থানার ছাদে এ ঘটনা ঘটে। রোববার (২১ মার্চ) সকালে তার মরদেহ দেখতে পায় পুলিশ। মৃত হাসান আলী যশোরের কেশবপুর উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের মো: জব্বার আলীর ছেলে।

পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুদ আলম জানান, শনিবার রাতে খাবার খেয়ে থানার ব্যারাকের একটি কক্ষে ছিলেন এসআই হাসান আলী। রাত দেড়টার দিকে তিনি মোবাইল ফোনে কথা বলার জন্য থানার ছাদে যান। সেখানে তিনি রাতের কোনো এক সময় তার নামে ইস্যুকৃত পিস্তল মাথায় ঠেকিয়ে গুলি করে আত্মহত্যা করেন।

রোববার তার থানায় ডিউটি অফিসারের দায়িত্ব ছিল। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে তাকে থানায় দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুজির এক পর্যায়ে থানার ছাদে হাসানের মরদেহ পাওয়া যায়। তার আত্মহত্যার কারণ জানা যায়নি। তবে পারিবারিক কলহের কারণে তিনি আত্মহত্যা করতে পারেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ।

তার সহকর্মী একই থানার এসআই রাশিদুল ইসলাম জানান, আমি আর হাসান থানার ব্যারাকে একই কক্ষে থাকতাম। রাতে আমি মোবাইলফোনে আমার পরিবারের সাথে কথা বলছিলাম। কথা শেষ হওয়ার পর হাসান মোবাইলে কথা বলার জন্য থানার ছাদে চলে যায়। তারপর আমি ঘুমিয়ে পড়ি। ছাদে কখন তিনি আত্মহত্যা করেছেন তা কেউ টের পায়নি। সকালে বিষয়টি জানাজানি হয়। আমি যতদুর জানি হাসানের সাথে কোনো মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক ছিল না। তবে পারিবারিক অশান্তিতে ভুগছিলেন।

ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম) মাসুদ আলম সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, তিনি অবিবাহিত ছিলেন। সদ্য এসআই হিসেবে যোগদান করেন। কিন্তু কী কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন-সে বিষয়ে এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না। লাশের কাছ থেকে তার ব্যবহৃত একটি ভাঙা সিমকার্ড পাওয়া গেছে।

তিনি আরোও জানান,  ধারণা করা হচ্ছে, প্রেমঘটিত কোনো বিষয়ে মোবাইলে কথা বলতে গিয়ে উত্তেজিত হয়ে ক্ষোভে অভিমানে তিনি আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন। বিষয়টি তদন্ত করে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করা হচ্ছে ।

আতাইকুলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলাম জানান, হাসান আলী এ বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি পাবনার আতাইকুলায় থানায় এসআই হিসেবে যোগ দেন। এর আগে গত বছরের ৬ ফেব্রুয়ারি তিনি বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে যোগ দেন। তিনি অবিবাহিত ছিলেন।

আগে প্রকাশিত সংবাদ

থানার ছাদে উঠে এসআইয়ের আত্মহত্যা