• আজ ২৮শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সুবর্ণচরে সংখ্যালঘু পরিবারের সম্পত্তি দখলের অভিযোগ

৮:১৭ অপরাহ্ন | সোমবার, মার্চ ২২, ২০২১ চট্টগ্রাম
Moti Bala Shil

ইমাম উদ্দিন সুমন, নোয়াখালী প্রতিনিধি: নোয়াখালীর সুবর্ণচরের চরওয়াপদা ইউনিয়নের ধানের শীষ গ্রামে সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের এক পরিবারের বসতবাড়িসহ সম্পত্তি দখলে অভিযোগ উঠেছে একই এলাকার আব্দুল হাই (মোটা আব্দুল হাই) এর পুত্র আব্দুল মতিন ও তার ভাইদের বিরুদ্ধে।

সোমবার (২২ মার্চ) সকালে সরেজমিনে গিয়ে কথা হয় ভুক্তভোগী মালতী বালা শীল এবং অভিযুক্ত আব্দুল মতিনের সাথে।

এসময় ভুক্তভোগী মালতী বালা শীল প্রতিবেদককে জানান, নদী ভাঙ্গনের পর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়া থেকে সহায় সম্ভল নিয়ে জমি ক্রয় করে ঘর বাঁধেন নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চর ওয়াপদা ইউনিয়নের ধানের শীষ গ্রামে। স্বামী অসুস্থ্য ননী গোপাল শীল এবং একমাত্র পুত্র অমর কৃষ্ণ শীলকে নিয়ে গত ১২ বছর থেকে বসবাস করে আসছেন মালতী বালা শীল। করোনা কালিন সময়ে স্বামীর চিকিৎসা ও অর্থনৈতিক সংকটে একই এলাকার আব্দুল মতিন ও তার ভাইদের থেকে কিছু টাকা কর্জ নেন। এসময় আব্দুল মতিন তাদের থেকে দলিল জমা রেখে টাকা নিতে বললে সরল মনে মালতী বালা শীল তাদের সম্পদের দলিল জমা দিয়ে টাকা নেন। কয়েক দিন যেতে না যেতেই আব্দুল মতিন টাকার জন্য চাপ দেন নতুবা তাদেরকে সম্পত্তি ছেড়ে চলে যেতে বলেন। পরে নকল স্বাক্ষর দেখিয়ে দলিল করে মালতী বালা শীলের পুরো সম্পত্তির মালিকানা দাবি করেন তারা।

অসহায় মালতী বালা শীল একটি পান-বিড়ি দোকান করে সংসার চালিয়ে স্বামীর চিকিৎসার ব্যায়ভার বহনে যখন হর্ণ্য তখন সম্পত্তির যবর দখলের বিরুদ্ধে আইনি ব্যাবস্থা নেয়ার সুযোগও হয়নি তার। এদিকে এলাকার কিছু অসাধু লোকের যোগসাজসে আব্দুল মতিন মালতী বালার পরিবারকে প্রতিদিন প্রাণ নাশের হুমকি দিয়ে আসছিল । গত মাস খানেক আগে একদিন আব্দুল মতিনের লোকজন মালতী বালার স্বামী ননী গোপাল শীলকে অসুস্থ অবস্থায় টেনে হিছড়ে ঘর থেকে বের করে দেয় ।

এসময় ননী গোপাল মারাত্ত¡ক যখম পেলে হসপিটালে অসুস্থাবস্থায় সে মারা যায়।

এদিকে প্রাণ নাশের হুমকিতে পালিয়ে বেড়াচ্ছে তাদের একমাত্র পুত্র অমর কৃষ্ণ শীল। মালতী বালা শীল এবিষয়ে স্থানীয় সাংসদ, জেলা যুবলীগ আহবায়ক, মানবাধিকার সংস্থাসহ এলাকার অনেকের কাছে জানিয়েছেন । তারা বিষয়টি দেখার কথা জানালেও বাস্তব কোন পদক্ষেপ নেয়নি । মালতি বালা জানান তার কাছে জমির খতিয়ান, খাজন, দাখিলা সবই রয়েছে। তিনি এবিষয়ে প্রশাসনের কাছে ন্যায় বিচার এবং স্বামীর বসত বিটায় বাকি জীবন কাটানোর সুযোগ কামনা করেন।

স্থানীয় নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যাক্তি জানান, মালতী বালা শীলের স্বামী বহুদিন যাবৎ অসুস্থ থাকায় এবং পারিবারিক অসচ্ছলতার কারনে তারা আব্দুল মতিন ও তার ভাইদের থেকে বিভিন্ন সময়ে মোট সাড়ে চার লক্ষ টাকা সুদের উপর কর্জ নেন । এসময় আব্দুল মতিন কৌশলে তাদের থেকে জমির দলিল জব্দ করে। পরে টাকা পরিশোধের চাপে মালতী বালার বাড়িতে রাতের আঁধারে ঘর নির্মাণ করে। অসহায় মালতী বালার কোন আত্মীয় স্বজন না থাকায় কারো কাছে ন্যায্য বিচার পায়নি। অভিযোগ উঠেছে আব্দুল মতিনরা বর্তমান সরকার দলের নাম ভাঙ্গিয়ে আরো অসংখ্য অপকর্ম করে যাচ্ছে। স্থানীয় দলীয় নেতা কর্মীদের ম্যানেজ করে এমন কাজ গুলো করে যাচ্ছেন বলেও জানান এ ব্যক্তি।

এবিষয়ে প্রতিপক্ষ আব্দুল মতিনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, মালতী বালা শীল তাদের নিকট সম্পত্তি বিক্রি করেছে। যবর দখলের বিষয়টি তিনি অস্বীকার করেন।

অন্যদিকে চরজব্বার থানার এসআই রবিউল জানান গত চার দিন আগে মহিলার অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা ঘটনাস্থলে যাই। এসময় মহিলার অভিযোগ আমরা শুনেছি। এবিষয়ে পরবতীতে আইনানুগ ব্যাবস্থা নেয়ার কথা জানান তিনি।