• আজ শুক্রবার। গ্রীষ্মকাল, ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ২৩শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। রাত ৪:৪৬মিঃ

মতিঝিলে মোদিবিরোধী বিক্ষোভ, টিয়ারগ্যাসে ভিপি নুর আহত

⏱ | বৃহস্পতিবার, মার্চ ২৫, ২০২১ 📁 আলোচিত বাংলাদেশ
nur 7

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনের বিরোধিতা করে রাজধানীতে বাংলাদেশ যুব অধিকার পরিষদের ব্যানারে মিছিল করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) বেলা সাড়ে ১১টায় পল্টন এলাকা থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরের নেতৃত্বে মিছিলটি বের হয়।

মিছিলটি রাজধানীর বিজয়নগর পানির ট্যাংক, পল্টন মোড় ও বিএনপি অফিস হয়ে মতিঝিলের দিকে যাওয়ার সময় পুলিশ বাধা দিলে ধাওয়া-পাল্টা শুরু হয়। এ সময় পুলিশের ছোড়া টিয়ারগ্যাসে ভিপি নুরুল হক নুর আহত হয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মিছিলটি শাপলা চত্বরে গেলে পুলিশ বাধা দেয়। তখন ছাত্র অধিকারের নেতাকর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট ছুঁড়তে থাকে। পুলিশও টিয়ারশেল ছোড়ে। এতে পুলিশের কয়েকজন সদস্য আহত হন। সংঘর্ষে ছাত্র ও যুব অধিকার পরিষদের অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী আহত হন।

ঘটনাস্থল থেকে ছাত্র অধিকার পরিষদের কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। আলোচিত শিশুবক্তা রফিকুল ইসলাম মাদানীকেও এ সময় আটক করা হয়।

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর ঢাকা সফর ঘিরে বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে যুব অধিকার পরিষদ আয়োজিত এই বিক্ষোভে পুলিশ পেছন থেকে অতর্কিত হামলা চালায় বলে অভিযোগ ছাত্র অধিকার পরিষদ নেতা মশিউর রহমানের।

তিনি জানান, পুলিশ মিছিলে লাঠিচার্জ, ক্যাদানে গ্যাস নিক্ষেপ ও ফাঁকা গুলি ছুঁড়েছে। এ সময় বিক্ষোভে অংশ নেওয়া প্রায় অর্ধশতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছেন।

মশিউর রহমান বলেন, আমরা মতিঝিল শাপলা চত্ত্বর পার হচ্ছিলাম এই সময় এই হামলার ঘটনা ঘটে। এখান থেকে শিশু বক্তা রফিকুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে।

এই সংঘর্ষে আহত হয়েছেন নুরুল হক নুর। এই তথ্য জানিয়েছেন নুরের ভাগ্নে মিঠু। তিনি টেলিফোনে বলেন, মামা পুলিশের হামলায় আহত হয়েছেন। এ সময় বেশ কয়েকজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

তবে নুরের ফেসবুক স্ট্যাটাসে দাবি করা হয়েছে যে, তিনি গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

এ বিষয়ে ছাত্র অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক সোহরাব হোসেন ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক আকরাম হোসেন বলেন, ‘নুর বর্তমানে আহত অবস্থায় মতিঝিল এলাকায় আছেন। তবে গুলি লেগেছে কি-না সেটা জানি না। তার সাথে আমাদের কিছু সহকর্মী আছে।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র অধিকার পরিষদের সাবেক সভাপতি বিন ইয়ামিন মোল্লা বলেন, ‘নুরুল হক নুর গুলিবিদ্ধ হননি। টিয়ার গ্যাসের কারণে অসুস্থ হয়ে পড়েন। এখন সুস্থ আছেন।’

তবে এ প্রসঙ্গে জানতে নুরুল হক নুরকে একাধিকবার মোবাইল ফোনে কল দেয়া হলেও তিনি রিসিভ করেননি।