• আজ ২৯শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

হেফাজত সমর্থকদের হামলায় হাটহাজারী থানা এলাকা রণক্ষেত্র

৪:৪৯ অপরাহ্ন | শুক্রবার, মার্চ ২৬, ২০২১ স্পট লাইট

সময়ের কন্ঠস্বর ডেস্ক: আজ শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে হাটহাজারী মাদ্রাসা কেন্দ্রীয় মসজিদ থেকে মিছিল বের করে ৫০০ গজ দূরে থানার দিকে এগিয়ে যায় হেফাজত কর্মী সমর্থকরা।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বর্ণনা অনুযায়ী, হেফাজত অনুসারীদের পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করতে দেখা যায়। পুলিশ প্রথমে কাঁদানে গ্যাস ছুড়ে ছত্রভঙ্গের চেষ্টা চালায়।

এক পর্যায়ে পুলিশ সদস্যরা রাবার বুলেট ও শর্টগানের গুলি ছুড়তে শুরু করে। প্রায় এক ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ চলে।

ঢাকার বায়তুল মোকাররম এলাকায় সংঘর্ষের প্রতিক্রিয়ায় চট্টগ্রামের হাটহাজারী থানায় হামলার চেষ্টা করেছে ধর্মভিত্তিক সংগঠন হেফাজতে ইসলামের কর্মী সমর্থকরা।

এ সময় দুই পক্ষের সংঘর্ষে রণক্ষেত্রে পরিণত হয় থানা এলাকা। হামলাকারীরা ইট পাটকেল ছুড়লে পুলিশ কাঁদানে গ্যাসের পাশাপাশি রাবার বুলেট ও গুলি ছোড়ে।

শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে হাটহাজারী মাদ্রাসা কেন্দ্রীয় মসজিদ থেকে মিছিল বের করে ৫০০ গজ দূরে থানার দিকে এগিয়ে যায় হেফাজত কর্মী সমর্থকরা।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বর্ণনা অনুযায়ী, হেফাজত অনুসারীদের পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করতে দেখা যায়। পুলিশ প্রথমে কাঁদানে গ্যাস ছুড়ে ছত্রভঙ্গের চেষ্টা চালায়।

এক পর্যায়ে পুলিশ সদস্যরা রাবার বুলেট ও শর্টগানের গুলি ছুড়তে শুরু করে। প্রায় এক ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ চলে।

সংঘর্ষের পর হেফাজতের আহত বেশ কয়েকজন নেতা-কর্মীকে রিকশাভ্যানে করে নিরাপদে সরিয়ে নিতে দেখা যায়। এদের একজনের শরীর থেকে রক্ত ঝরছিল।

হেফাজতের প্রচার সম্পাদক জাকারিয়া নোমান ফয়েজী বলেন, ‌‘‌পুলিশ হেফাজত কর্মীদের ওপর গুলি চালিয়েছে। আমাদের একাধিক কর্মী গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।’

এই বিষয়ে জানতে হাটহাজারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল আলমকে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর দিন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঢাকা সফরের প্রতিবাদে বামপন্থিদের পাশাপাশি ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরের সাধারণ ছাত্র ও যুব অধিকার পরিষদ এবং ধর্মভিত্তিক বিভিন্ন দল ও সংগঠন গত কয়েকদিন ধরেই প্রতিবাদে মুখর।

তবে গত ২২ মার্চ ঢাকায় সংবাদ সম্মেলন করে হেফাজত বলেছিল, তারা মোদির সফরের বিরোধী হলেও এ নিয়ে কোনো সংঘর্ষে যাবে না, রাজপথে কোনো কর্মসূচিও নেই তাদের।

এর মধ্যে শুক্রবার সকালে মোদি ঢাকায় আসার কয়েক ঘণ্টা পর জুমার নামাজ শেষে রাজধানীর বায়তুল মোকাররম এলাকায় ধর্মভিত্তিক দলের নেতা-কর্মীদের সঙ্গে সরকার সমর্থক ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা-কর্মীদের সংঘর্ষ হয়।

এই খবর হাটহাজারী পৌঁছার পর উত্তেজিত হয়ে উঠে হেফাজতের নেতা-কর্মীরা।