ইটের দেয়াল তুলে চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি সড়ক অবরোধ হেফাজতের

৬:০৯ অপরাহ্ন | শনিবার, মার্চ ২৭, ২০২১ চট্টগ্রাম
road

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- হেফাজতে ইসলামের কর্মীদের অবরোধের কারণে চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি সড়কে যানবাহন চলাচল ২৪ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে বন্ধ।

সড়কে ইটের দেওয়াল বানিয়ে ও বাঁশের ব্যারিকেড দিয়ে অবস্থান নিয়েছে হেফাজত কর্মীরা। এতে খাগড়াছড়ি, রামগড়, ফটিকছড়ি ও নাজিরহাটের লোকজন কার্যত অবরুদ্ধ অবস্থায় পড়েছে।

শনিবার (২৭ মার্চ) বিকেল তিনটার দিকেও চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি সড়কের হাটহাজারীর ত্রিবেণীর মোড়ে হাজারখানেক হেফাজত কর্মী অবস্থান করছিল বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন। পুরো এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন আছে। এছাড়া ২৫০ র‌্যাব এবং বিজিবির ১০০ সদস্য মোতায়েন আছে। দোকানপাট বন্ধ আছে। তবে পরিস্থিতি তুলনামূলক শান্ত।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নেতাকর্মী-সমর্থকরা হাটহাজারী মাদ্রাসার সামনের সড়কে ইটের দেয়াল তুলে এবং বাঁশ দিয়ে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করে রেখেছে। এর ফলে খাগড়াছড়ি-ফটিকছড়িসহ ওই এলাকার লোকজনকে চট্টগ্রামে যেতে গিয়ে দুর্ভোগের মধ্যে পড়তে হচ্ছে। দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম মাদরাসার আগে গ্রামের ভেতর দিয়ে একটি সড়ক দিয়ে ছোট ছোট কিছু যানবাহন চলাচল করছে। অনেকে পায়ে হেঁটেও অবরোধস্থল পার হচ্ছেন। দূরপাল্লার বড় যানবাহন চলাচল পুরোপুরি বন্ধ।

সড়ক অবরোধ প্রসঙ্গে হেফাজতে ইসলামের সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী বলেন, ‘পুলিশ আমাদের শান্তিপূর্ণ মিছিলে নির্বিচারে গুলি চালিয়েছে। এতে চারজন নিহত হয়েছে। অনেক ছাত্র গুলিবিদ্ধ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এই ঘটনার প্রতিবাদের আগামীকাল রোববার (২৮ মার্চ) সারা দেশে হরতালের ডাক দেওয়া হয়েছে।’

হামলার প্রতিবাদে হেফাজতে ইসলামের শান্তিপূর্ণ আন্দোলন অব্যাহত থাকবে বলে জানান এই নেতা।

হাটহাজারী থানার ডিউটি অফিসার এসআই কবির উদ্দিন বলেন, যান চলাচল স্বাভাবিক করতে চেষ্টা চলছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাদাত হোসেন জানান, সড়ক যোগাযোগ বন্ধ থাকলেও পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। এলাকায় পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবির সদস্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় দায়িত্ব পালন করছে।